অজয়কে বিয়ে করায় বাবা ৪ দিন আমার সঙ্গে কথা বলেনি : কাজল

১৯৯৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি অজয় দেবগনের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েন কাজল। যাতে নাকি বিন্দুমাত্র সায় ছিল না অভিনেত্রীর বাবা সমু মুখোপাধ্যায়ের। সম্প্রতি এ বিষয়েই এক সাক্ষাৎকারে মুখ খুলেছেন সমু-তনুজাকন্যা। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে কাজল বলেন, তিনি যখন অজয় দেবগনকে বিয়ে করেন, তখন তাঁর বয়স মাত্র ২৪। সমু মুখোপাধ্যায় চেয়েছিলেন, তাঁর মেয়ে এত অল্প বয়সে বিয়ে না করে ক্যারিয়ারে মন দিক। তবে মেয়ের সিদ্ধান্তে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তনুজা।

কাজলের কথায়, বাবা ২৪ বছর বয়সে আমার বিয়ের সম্পূর্ণ বিরুদ্ধে ছিলেন, তিনি চেয়েছিলেন আমি বিয়ের আগে আরো অনেক কাজ করি। যে কারণে চার দিন বাবা আমার সঙ্গে কথা পর্যন্ত বলেননি। তবে সে ক্ষেত্রে আমার পাশে ছিলেন মা। তিনি বলেছিলেন, আমার যেটা ইচ্ছা আমি যেন সেটাই করি। তবে আমার বিয়েতে বাবা-মা দুজনই ছিলেন। জি নিউজের সংবাদ অনুযায়ী কাজল বলেন, আমি আর অজয় কেউই কাউকে বিয়ের প্রস্তাব দিইনি, তবে আমরা জানতাম যে আমরা একসঙ্গে কাটাতে চাই। আমি ভাগ্যবান যে চারপাশের প্রত্যেকেই সব সময় আমার পাশেই ছিলেন। তাই আমি যা করতে চেয়েছি ঠিক তা-ই করেছি।

আমাকে পুরুষতন্ত্রের মুখোমুখি হতে হয়নি। আবার হয়তো বা আমিও পুরুষতন্ত্রের মুখোমুখি হয়েছি, তবে ঠিক বুঝে উঠতে পারিনি। তবে নিজের সুন্দরভাবে বেড়ে ওঠার বেশির ভাগ কৃতিত্ব মা তনুজাকেই দিতে চেয়েছেন কাজল। তাঁর কথায়, মায়ের কারণেই বাবা-মায়ের (তনুজা-সমু) আলাদা হয়ে যাওয়ার মতো কঠিন পরিস্থিতিকেও তিনি সামলে উঠতে পেরেছেন। ২২ বছর পার হয়ে গিয়েছে, অজয় দেবগনের সঙ্গে সুখে দাম্পত্য কাটাচ্ছেন কাজল। তাঁদের দুই সন্তানও রয়েছে যুগ ও নাইসা। অজয়-কাজলের মেয়ে নাইসা পড়াশোনার জন্য সিঙ্গাপুরে থাকেন। অভিনেত্রী জানান, তাঁকে প্রায়ই মেয়ের কাছে গিয়ে থাকতে হয়। স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে ছেলের দেখাশোনা করেন অজয়।

তথ্যসূত্র:- কালের কন্ঠ

আরও পড়ুন:Neuromedicine,Neurology specialist doctor list in Dhaka| নিউরো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার তালিকা

 

 

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply

Translate »