আমরা বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিষদের পক্ষ থেকে জাতীয় করন- ই এ সি সিদ্ধান্তকেই স্বাগত জানাই।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কয়েক দিন পূর্বে এম.পি.ও ভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয় করন করার জন্য সুপারিশ করছেন।
আজ শিক্ষা সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম শিক্ষা মন্ত্রণালয় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের ই এ সি আর চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিষদের পক্ষ থেকে দুটো সিদ্ধান্তকেই স্বাগত জানাই। একটি অন্যটির পরিপূরক। আমরা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয় করনে দাবি করছি। আপনারা আমাদের দাবি মেনে নিন।আমরা সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ন্যায় ই এ.সি.আর মেনে নিব।তবে একটি বাদ দিয়ে অন্যটি চালুকরা যাবে না।আমার মনে হয় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ ম্যানেজিং কমিটি বা গর্ভনিং বডি রেখে এ সি আর চালু করা বাস্তব সম্মত হবে না। আমরা মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয় করন করার মাধ্যমে এ সি আর চালুর পক্ষে।
দুলাল চন্দ্র চৌধুরী
সাংগঠনিক সম্পাদক
বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদ।

Leave a Reply Cancel reply