ছাগলের দুধ না কি গরুর দুধ কোনটি পান করা ভালো?

দুধে রয়েছে একাধিক পুষ্টিগুণ। শিশু থেকে বয়স্ক, সকলেরই উচিত রোজ এক গ্লাস করে দুধ খাওয়া। দুধে আছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ডি, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ফ্যাট, ইত্যাদি সহ ওমেগা থ্রি ইত্যাদি। এ জন্য দুধকে বলা হয়ে থাকে সুপার ফুড। কিন্তু কোনটি ভালো ছাগরেরদুধ নাকি গরুর দুধ? শিশুরা মায়ের দুধ খাওয়া বন্ধ করার পরেই নিয়মিত গরু বা ছাগলের দুধ খাওয়ানো উচিত।

গরুর দুধের উপকারিতা:

গরুর দুধ আমাদের কোলেস্টরল লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখে। ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে। পাশাপাশি এই দুধ আমাদের হাড় মজবুত করে, এনার্জি দেয়। একই সঙ্গে ত্বক ভালো রাখে। তবে গরুর দুধ অনেকের হজম করতে অসুবিধা হয়। কারো কারো অ্যালার্জির সমস্যাও দেখা দেয়। চর্বির পরিমাণও বেশি।

 

ছাগলের দুধের উপকারিতা:

বিশ্বের প্রায় শতকরা ৬৫ ভাগ এলাকায় ছাগলের দুধ ব্যবহৃত হয়। শরীরে ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন হলে তবে নিশ্চিন্তে ছাগলের দুধ খেতে পারেন। ছাগলের দুধ ফ্যাটের পরিমাণ অনেক কম হলেও প্রোটিন এবং ক্যালসিয়ামের বেশি রয়েছে। এক গ্লাস ছাগলের দুধে রয়েছে প্রায় ১৭০ ক্যালরি, ১০ গ্রাম প্রোটিন, ২৭ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল, ১১ গ্রাম কার্বন এবং ৬ গ্রাম চর্বি। এছাড়াও সিলেনিয়াম, জিং, তামা, পটাসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, রাইবোফেলভিন এবং ভিটামিন এ, বি ২, সি এবং ডি রয়েছে।

৫৫ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেলেন বেলায়েত

দুধ আমাদের হার্ট ভালো রাখতে সাহায্য করে। ছাগলের দুধের পুষ্টিগুণ মায়ের বুকের দুধের মতোই, এতে অ্যালার্জি হয় না। রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, এটা সহজে হজম করতে সাহায্য করে। হাড়ের গঠনকে শক্তিশালী করে তোলে এবং কোলেস্টরল কমায়। শিশুদের বৃদ্ধির জন্য ভীষণই উপকারী এই দুধ।

 

সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস।

Leave a Reply

Translate »