বিয়ের পর গৌরীর নাম বদলে করা হয় আয়েশা, শাহরুখ বাধ্য করে বোরখা ও নামাজ পরতে

বলিউডের (Bollywood) রোমান্স কিং শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) নিজস্ব লাভ লাইফও কিছু কম আকর্ষণীয় নয়। দিল্লিতে প্রেমিকাকে ছেড়ে মুম্বাইতে আসতে বাধ্য হয়েছিলেন শাহরুখ। স্বপ্নেও ভাবেননি, স্বপ্ননগরীতেই পাবেন প্রেমিকার দেখা। তারপর? তারপর কেটে গিয়েছে আড়াই দশকেরও বেশি সময়। সম্পর্ক ভাঙা-গড়ার মেলায় শাহরুখ-গৌরী (Gouri Khan) আজও বলিউডের পাওয়ার কাপল।

প্রেম মানেনা কোনও বাধা। জাতি-ধর্ম-বর্ণের বাধাও সেখানে তুচ্ছ। শাহরুখ খান, জন্মগত সূত্রেই মুসলিম। অপরপক্ষে গৌরী হিন্দু কন্যা। তবে তাদের প্রেম-বিয়েতে ধর্ম বাধা হতে পারেনি। ধর্মের বাধা উপেক্ষা করে আজও মন্নতে গণেশ চতুর্থী পালন হয়, দীপাবলির রোশনাইয়ে সেজে ওঠে শাহরুখ-গৌরীর রাজপ্রাসাদ। পালন হয় খুশির ঈদ।

তিন সন্তানকে নিয়ে হাসিখুশি দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন শাহরুখ-গৌরী। মাঝে ঝড়-ঝাপটা এসেছে ঠিকই, তবে শাহরুখ-গৌরীকে তা টলাতে পারেনি। শোনা যায়, শাহরুখ খান এক কমন ফ্রেন্ডের পার্টিতেই প্রথম গৌরীকে দেখেন। প্রথম দেখাতেই তিনি গৌরীর প্রেমে পড়েন। গৌরীকে পেতে তিনি ছিলেন মরিয়া। মুসলিম পরিবারের সন্তান হয়ে হিন্দু ব্রাহ্মণ পরিবারের কন্যা গৌরীকে পাওয়া এত সহজ ছিল না। তবে গৌরীকে পাওয়ার জন্য শাহরুখ পৃথিবীর যেকোনও প্রান্তে যেতে রাজি ছিলেন।
যেহেতু দুজনেই ভিন্ন ধর্মাবলম্বী, তাই শাহরুখ এবং গৌরী তিনবার বিয়ে করেন। বিয়ের পর তাদের আর কোন কোন সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছিল? বিয়ের পরপরই ফরিদা জালালের একটি টকশোতে অংশগ্রহণ করে শাহরুখ বলেন, “বিয়ের সময় যখন আমি ঘরে প্রবেশ করি তখন গৌরীর বাড়ির অনেকেরই মনে প্রশ্ন ছিল যে আমি কি গৌরীর ধর্ম পরিবর্তন করিয়ে দেব? গৌরীকে কি বোরখা পরতে হবে? গৌরীর নাম কি তবে পাল্টে যাবে! এরকম নানান কিছু।”

এরপর শাহরুখ মজা করে বলেন, “ওনারা পুরোনো ধর্মাবলম্বী মানুষ, যদিও আমি ওনাদের সম্মান করি তাও কিছু কথা বলেছিলাম। আমি গৌরীকে বলেছিলাম বোরখা পড়তে ও আমার সাথে নামাজ পড়তে। এই কথা শুনে গোটা পরিবার আমার মুখের দিকে হা করে তাকিয়ে থাকে। তারপর আমি বলি যে গৌরীর নাম বদলে আয়েশা করে দেওয়া হবে। সারাক্ষন সে বোরখা পরে থাকবে ও ঘর থেকে বেড়াবে না। ”

চুল গজানোর একটি সস্তা উপায় আবিষ্কৃত হয়েছে!
টাক মাথা 2 সপ্তাহের মধ্যে চলে গেছে

সাক্ষাৎকারে এমন কথা শাহরুখ যে নিতান্তই মজার ছলে বলেছেন তা আর আলাদা করে বলে দেওয়ার অপেক্ষা রাখে না। কারণ বিয়ের পর গৌরীকে বাইরে বেরোতে বা কাজ করতে বাধা দেননি শাহরুখ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শাহরুখ এবং গৌরির ২৬ আগস্ট, ১৯৯১ ‘নিকাহ’ হয়েছিল, তারপরে ২৫ অক্টোবর, ১৯৯১ হিন্দু মতে তাদের বিয়ে হয়। এই দুই বইয়ের আগে শাহরুখ ও গৌরীর কোর্ট ম্যারেজ হয়। শাহরুখ একজন মুসলিম এবং গৌরী একজন পাঞ্জাবি হওয়ায়, এই দম্পতি উভয় ধর্মীয় ঐতিহ্যের মাধ্যমে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করেন।

‘গৌরি নাম বদলে নাম রাখতে হবে আয়েশা, সর্বক্ষণ পরতে হবে বোরখাও …,

Leave a Reply

Translate »