শেহজাদ খান আমার ও বুবলীর সন্তান: শাকিব খান | তিন বাটপার এর সংসার শবনম বুবলীক, শাকিব খান,অপু

নিজের দ্বিতীয় সন্তানকে পরিচয় করিয়ে দিলেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। সেই সঙ্গে দ্বিতীয় স্ত্রীর পরিচয়ও প্রকাশ্যে আনলেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এমনটিই জানালেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান। এর কয়েক মিনিট আগেই বুবলী নিজের ভেরিফায়েট ফেসবুক পেজে একই ধরনের স্ট্যাটাস দিয়ে শাকিবকে বিয়ের কথা জানান।

শাকিবের স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো—
‘আমরা চেয়েছিলাম একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে। তবে আল্লাহ যা করেন ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি।
শেহজাদ খান বীর আমার এবং বুবলীর সন্তান, আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমার সন্তান আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।’

খুলনা গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের তালিকা

শাকিব পোস্টের সঙ্গে সন্তানের একটি ছবিও দিয়েছেন। এতে দেখা যাচ্ছে— আদুরে শেহজাদকে জড়িয়ে ধরে চুমু খাচ্ছেন ঢালিউড নায়ক।

শাকিবের পোস্টটি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে গেছে। মাত্র ৫৪ মিনিটে ১ লাখ ১৯ হাজার লাইক পড়েছে। শেয়ার হয়েছে ৭ হাজার তিনশর বেশি। তবে শাকিব মন্তব্যের ঘর ফেসবুক ব্যবহারকারীদের জন্য সীমিত করে দিয়েছেন। এ কারণে কমেন্টে দেখা যাচ্ছে না।

এর আগে বুবলী নিজের ফেসবুক পোস্টে জানান, শাকিব তাকে বিয়ে করেছেন। তাদের সন্তান রয়েছে।

দুদিন আগে অপু-শাকিবের ছেলে আব্রাম খান জয়ের জন্মদিনে বেবিবাম্পের ছবি ফেসবুকে দিয়ে আলোচনার জন্ম দেন বুবলী। ওই দিনই বুবলী সাংবাদিকদের জানান, একটা কিছু ঘটেছে, যেটি শিগগিরই খোলাসা করবেন তিনি। বুবলী এও জানান, তিনি মুসলিম, তাদের মধ্যে যা হয়েছে শালিনভাবে হয়েছে।

চক্ষু বিশেষজ্ঞ খুলনা ডাক্তার

এর পরই গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বুবলী-শাকিব সম্পর্ক নিয়ে আলোচনার ঝড় শুরু হয়। আজ দুজনেই বিষয়টি সবার কাছে পরিষ্কার করলেন।

শাকিব খান এর আগে ২০০৮ সালে নায়িকা অপু বিশ্বাসকে বিয়ে করেন। ২০১৬ সালে তাদের ঘর আলো করে আসে আব্রাম খান জয়। ছেলের প্রথম জন্মদিনের কিছু দিন আগে অপু টেলিভিশন লাইভে গিয়ে নিজের ও শাকিবের বিয়ের কথা প্রকাশ্যে আনেন। এ নিয়ে অপু ও শাকিবের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়। ২০১৮ সালে ভেঙে যায় শাকিব-অপুর সংসার। অপু তখনই বুবলীর সঙ্গে যে শাকিবের ঘনিষ্ঠতা হয়েছে, সেই তথ্য প্রকাশ করেন। তবে বুবলী ও শাকিব বিষয়টি এতদিন স্বীকার করেননি।

শাকিব-বুবলীর সন্তানের ছবি প্রকাশ্যে, আসছে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা

অবশেষে প্রকাশ্যে এলো শাকিব খান ও বুবলীর সন্তানের ছবি। ২০২০ সালের ২১ মার্চ  পুত্র সন্তানের জন্ম দেন বুবলী। সন্তানের নাম রাখা হয় শেহজাদ খান বীর। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড জ্যুইশ মেডিকেল হাসপাতালে শেহজাদের জন্ম হয়।

সম্প্রতি বেবিবাম্পের ছবি পোস্ট করে হইচই ফেলে দেন বুবলী। সন্তানের বাবা কে? সন্তান অদৌ জন্ম হয়েছে কিনা এ বিষয়ে উঠে প্রশ্ন।  শাকিব খান ও শবনম বুবলীকে নিয়ে অনেক গুঞ্জনই ডালপালা মেলে। সব গুঞ্জন উড়িয়ে অবশেষে প্রকাশ্যে এলো এ তারকা জুটির সন্তানের ছবি। যার বয়স এখন আড়াই বছর।

সূত্রের বরাতে খবর, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজে চড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান বুবলী। ৯ মাসের আড়াল ভেঙে তিনি সবার সামনে আসেন। এরপর ব্যস্ত হয়ে পড়েন কাজকর্মে। আড়ালে যাওয়ার আগে বুবলী ‘বীর’ ও ‘ক্যাসিনো’ ছবির শুটিং করেন।

‘বসগিরি’ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন শবনম বুবলী। ছবিতে অভিনয় করতে গিয়ে একটা পর্যায়ে তাঁদের প্রেমের সম্পর্কের খবর শোনা যায়। শাকিব খানের সঙ্গে শবনম বুবলীর প্রেমের সম্পর্কের বিষয়ে কয়েক বছর ধরেই আলোচনা চলছিল। এসব আলোচনার এক ফাঁকে ২০১৭ সালের মার্চে প্রথম দুজনের প্রেমের খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। প্রেম ও বিয়ে নিয়ে একাধিক গুঞ্জন শোনা গেলেও দুজনের কেউই এই বিষয়ে

অপু এসেছিলেন টেলিভিশন লাইভে, বুবলী ফেসবুকে

সম্প্রতি বেবিবাম্পের ছবি পোস্ট করে হইচই ফেলে দেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী।  তার সন্তানের বাবা কে? সন্তান পৃথিবীর আলো দেখেছে কিনা এ বিষয়ে ওঠে প্রশ্ন।

এরই সঙ্গে শাকিব খানের সঙ্গে জড়িয়ে বুবলীকে নিয়ে হওয়া সব গুঞ্জন ফের ডালপালা মেলে। এরই সঙ্গে যে প্রশ্ন ওঠে— বুবলী কি তবে অপু বিশ্বাসের পথেই হাঁটছেন? অবশেষে সন্তানের কথা স্বীকার করে গুঞ্জনকে সত্যি রূপ দিলেন শাকিব খান ও বুবলী দুজনেই।  সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ করলেন এ তারকা জুটি।

এই ঘটনায় আবারও ঘুরেফিরে আলোচনায় এসেছেন নায়িকা অপু বিশ্বাস। ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল গুলশানের একটি বাড়িতে কঠোর গোপনীয়তায় নায়িকা অপুকে বিয়ে করেন শাকিব। প্রায় ১০ বছর পর ছেলে আব্রাম জয়কে কোলে নিয়ে টেলিভিশন লাইভে হাজির হন অপু। সেদিন রীতিমতো হাটে হাড়ি ভাঙেন অপু। কাঁদতে কাঁদতে জানান, শাকিবের সঙ্গে তার বিয়ে ও সন্তান জন্মের কথা।

তবে ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি বিচ্ছেদ হয়ে যায় শাকিব-অপুর সংসারের।

চার বছরের ব্যবধানে একই চিত্রনাট্য দর্শকদের সামনে। এবারের ঘটনার নায়িকা চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। ফেসবুকে শাকিবকে বিয়ের খবর দেওয়ার পাশাপাশি দিলেন সন্তান জন্মের খবরও।
পার্থক্য এটুকুটুই যে, অপু প্রকাশ্য নিয়ে আসেন টেলিভিশন লাইভে আর বুবলী এসেছেন ফেসবুক পোস্টে।

শুক্রবার দুপুরে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে শাকিবসহ সন্তানের বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেন এ চিত্রনায়িকা।

সেই পোস্টে বুবলী লেখেন, আমরা চেয়েছি একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে। তবে আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন। সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি।

এর পর গণমাধ্যমকে বুবলী বলেন, ‘শেহজাদ খান বীর— আমার এবং শাকিব খান এর সন্তান। আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমার সন্তান, আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।’

অনেক কাঠখড় পোড়ানোর পর শাকিব সেবার স্বীকার করেন আব্রাম জয় তারই ছেলে।  কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালে জন্ম হয় জয়ের।

এবার ২৭ আগস্টে বুবলীর পোস্টের তিন দিনের মাথায় এক ফেসবুক পোস্টে শাকিব স্বীকার করেন বুবলীর সন্তান তারই।  তার এ ছেলের নাম শেহজাদ খান বীর।

শাকিব-বুবলীর ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, বুবলী মা হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড জ্যুইশ মেডিকেল হাসপাতালে। ২০২০ সালের ২১ মার্চ পুত্রসন্তানের জন্ম দেন বুবলী।

তবে তারা কবে বিয়ে করেছেন এই তথ্য জানাতে পারেনি সূত্রটি।

অপু বিশ্বাসকে নিয়ে বুবলীর পুরনো স্ট্যাটাস ভাইরাল

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ করেছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা শবনম বুবলী।

সন্তানের বাবা হিসেবে শাকিব খানের নাম জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করেছেন এ নায়িকা।পরে একই ধরনের পোস্ট দিয়ে সন্তানের স্বীকৃতি দিয়েছেন শাকিবও।
বিয়ের বিষয়টি অস্পষ্ট রাখলেও শাকিব-বুবলী দুজনেই জানিয়েছেন, তার ছোট্ট রাজপুত্রের নাম শেহজাদ খান বীর।

প্রকাশ্যে আসার আগেই শেহজাদের বয়স আড়াই বছর। শাকিব-বুবলীর পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, ২০২০ সালের ২১ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড জুয়িশ মেডিকেল হাসপাতালে জন্ম হয়েছে বুবলীর ছেলের।  যদিও বিয়ের বিষয়টি স্পষ্ট করেননি তারা।

এদিকে এমন সব খবরের বেড়াজালে ভাইরাল হয়েছে ২০১৭ সালে দেওয়া বুবলীর একটি স্ট্যাটাস। যেখানে অপু বিশ্বাস কেন দীর্ঘসময় সন্তানকে লুকিয়ে রেখেছিলেন সে প্রশ্ন করেছেন বুবলী।

অপুর প্রতি বুবলীর প্রশ্ন ছিল— ২০০৮ সালে বিয়ের পরও কেন এত বছর বিষয়টি আড়াল করেছেন তিনি? সংসার ও সন্তানের চাইতে কি ফিল্মের ক্যারিয়ার বড় তার কাছে?
পাঠকের উদ্দেশে বুবলীর সেই পোস্ট তুলে ধরা হলো—

‘ব্যাপারটি কি emotional নাকি professional ? কোনটি ? একদম recent issue নিয়ে যদি কথা হয় তা হলে আমার মন্তব্য না করাটাই শ্রেয়। কারণ এটি সম্পূর্ণ যার যার ব্যক্তিগত ব্যাপার , আর আমি স্বভাবতই নিজের মতো থাকতে পছন্দ করি; কিন্ত যখন সেখানে আমার কিছু issues মানুষ নিয়ে আসে, তখন তো সেখানে স্বাভাবিকভাবে অনেকেই জানতে চাইছে এবং অনেক phone calls পাচ্ছি এসব নিয়ে যে আমি কীভাবে দেখছি!

By the way আমি প্রথমেই একটা জিনিস জানতে চাই গতকাল কেন অপু বিশ্বাস এত দিনের আড়াল ভেঙে সরাসরি channel এ গিয়ে এসব কথা বললেন? কই এত দিন তো যাননি, কারও সামনে আসতে চাননি… কেন? কই সাংবাদিক ভাইয়েরা তো এত চেষ্টা করেও সামনে আনতে পারলেন না, মুখ খোলাতে পারলেন না; বরং আপনারা নাকি যখন জিজ্ঞেস করেছেন, তখন নাকি নানান কথা বলেছে।  তার ভাষ্যমতে, ২০০৮ সাল থেকে সে বিবাহিত তা হলে এতদিন কেন মর্যাদা চাননি? শাকিব না হয় লুকিয়েছে, সে লুকায়নি? কেন career-এর জন্য? একজন wife-এর কাছে career এতই বড়? Career নিয়ে ভাবা ঠিক আছে but নিজের মর্যাদা আদায়-এর আগে কি career?’

এর পর বুবলী লেখেন, ‘অপু বিশ্বাস আরও বলেছেন— তার সাথে শাকিবের গত এক বছরের মতো কথা হয় না, এটি কি কোনো সম্পর্কের জন্য স্বাভাবিক? তখনো তো স্বীকৃতি চাইতে সবার সামনে এলো না। কেন? সে আরও বলল— তার delivery হয়েছে গত বছর September-এ, তা হলে তখন আসলো না স্বীকৃতির জন্য। কেন? শাকিব না হয় লুকিয়েছে, সে লুকায়নি? একজন মায়ের কাছে কি সন্তানের থেকে career বড়? কই গত পরশু দিন পর্যন্ত তো সে বাচ্চাটির স্বীকৃতি চাইল না!’

খুলনা গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের তালিকা

অপু বিশ্বাস কেন সন্তানকে নিয়ে হঠাৎ লাইভে এলেন, তার ব্যাখ্যাও দেন বুবলী।

তিনি লেখেন— ‘এবার আসি কেন (অপু বিশ্বাস) আসলেন সামনে…গতকাল যখন একটি পত্রিকায় news হলো ‘রংবাজ’ ছবি নিয়ে, তখন তার নাকি মাথা খারাপ হয়ে গেল আমার নাম দেখে। সে চায় না শাকিব-বুবলী একসাথে কাজ করুক। সে শাকিবকে লোক মারফতে জানালো তাকে নিয়ে একটি ছবির news করাতে, না হয় আমাকে নিয়ে ছবির news off করাতে না হলে এটার শেষ দেখে ছাড়বে সে। আজকে এখানে বুবলী না থেকে অন্য কেউ থাকতে পারত, যার সাথে শাকিবের জুটি গড়ে উঠেছে, অপু বিশ্বাস যেটা আগের অনেক নায়িকাদের ক্ষেত্রে করতে দেয়নি, যা শাকিব নিজেই বলেছে। কেন রাজ্জাক sir শাবানা ম্যাডাম, রাজ্জাক sir ববিতা ম্যাডাম, রাজ্জাক sir কবরী ম্যাডাম জুটি ছিলেন না? রিয়াজ ভাই শাবনুর আপু, রিয়াজ ভাই পূর্ণিমা আপু জুটি ছিলেন না? এমন তো অনেক উদাহরণ আছে। কিন্তু অপু বিশ্বাস তার বাইরে কোনো জুটি established হোক এমনটি চায়নি বলেই কি তার মর্যাদা এতদিন চাইল না আর সন্তানের স্বীকৃতি এতদিন চাইল না। আজকে এই movie করা নিয়েই তো এত কিছু, তাকে নিয়ে movie declaration আসলে কি সে বাচ্চার স্বীকৃতি চাইত ? লুকিয়ে রাখত না?  ধরলাম শাকিব না করেছে বলতে, কিন্তু মা হয়ে সে কি করল? এখন movie নিয়ে problem হলো বলে সবার সামনে এসে সব বলছে?’

বুবলী আরও লেখেন, ‘একজন মানুষকে তারকা বানায় তার দর্শকরা, তার ভক্তরা;  যার জন্য আমি আমার দর্শক এবং আমার ভক্তদের কাছে কৃতজ্ঞ এত অল্প সময়ে আমাকে এত ভালোবাসা দেওয়ার জন্য। আর আজকে আমি ‘বসগিরি দিয়ে entry না করলে ‘প্রিয়া রে” ছবি দিয়ে আসতাম। কারণ সব প্রস্তুতি সেভাবেই নেওয়া হয়েছিল। যেটি ওই ছবির director, producer থেকে শুরু করে অনেকেই জানেন।  ‘প্রিয়া রে’ তো অন্য কারও movie ছিল না, তখন সে (অপু) কি বলত ?
আর হ্যাঁ, সহশিল্পীদের সবার সাথে সবার ভালো understanding থাকে, যেটি আমার সাথে শাকিবের আছে এবং থাকবে। তাকে অনেক শ্রদ্ধা করি, যেটি একদিনে তৈরি হয় না যে একদিনে কমে যাবে। Because Shakib Khan is our pride and always will be’

একসঙ্গে নেই শাকিব-বুবলী, হয়েছে বিচ্ছেদও!

চিত্রনায়ক শাকিব খান ও চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী দুজনই অভিন্ন ভাষায় নিজেদের সন্তানের খবর ও ছবি প্রকাশ করেছেন। যদিও বিয়ে ও এ সংক্রান্ত অন্য কোন তথ্য দেননি তাঁরা।

শাকিব খান দুদিন আগে তাঁর প্রথম সন্তান আব্রাম খান জয়ের জন্মদিনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। সেদিনই বুবলী নিজের বেবি বাম্পের ছবি প্রকাশ করেন। ফলশ্রুতিতে দীর্ঘদিনের গুঞ্জন স্বীকার করে নিয়েছেন এই দম্পতি; এমন ধারণা নেটিজনদের একাংশের।

শাকিব খান ও বুবলীর একাধিক সূত্র এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর দাবি করছে, সন্তানের কথা স্বীকার করলেও এখন আর একসঙ্গে থাকছেন না শাকিব-বুবলী। ‘লিডার : আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার শুটের আগেই এই দম্পতির ‘বিচ্ছেদ’ হয়েছে বলে দাবি সূত্রগুলোর।

যদিও এই প্রসঙ্গে সূত্রের করা দাবির প্রমাণ পাননি। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শাকিব খান ও শবনম বুবলীর মন্তব্যও গ্রহণ করতে পারেনি।

এর আগে শাকিবের সাবেক স্ত্রী অপু বিশ্বাস সন্তানের খবর প্রকাশ্যে নিয়ে আসায় ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর শাকিব অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের জন্য আবেদন করেন। ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি এই দম্পতির বিচ্ছেদ হয়। শাকিব-অপুর ১০ বছরের সংসারে একটি ছেলেসন্তানের জন্ম হয়। বিচ্ছেদের পর থেকে জয় মায়ের সঙ্গে থাকে। পড়াশোনা করে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে।

স্বামী ও সন্তানের পরিচয় প্রকাশ করলেন বুবলী

দুদিন আগে বেবিবাম্পের ছবি পোস্ট করে সন্তানের মা হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা শবনম বুবলী। এবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে সন্তানের ছবিসহ বিস্তারিত প্রকাশ্যে আনলেন এ নায়িকা।

সন্তান ও স্বামীকে পরিচিত করিয়ে দিলেন সবার সঙ্গে।

শুক্রবার দুপুর ১২টায় বুবলী ফেসবুকে নাটকীয় এক ঘোষণায় জানিয়ে দিয়েছেন, তার সন্তানের নাম শেহজাদ খান বীর। আর স্বামীর নাম শাকিব খান। শেহজাদের বাবা শাকিব।

বুবলীর স্ট্যাটাসে তোলপাড় শুরু হয়েছে সিনে অঙ্গনে। ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের অনেকে তাকে শুভেচ্ছায় ভাসাচ্ছেন। আবার মিশ্র প্রতিক্রিয়াও দেখা গেছে। ফেসবুক কমেন্ট ঘরে গিয়ে দেখা গেছে কেউ কেউ বিয়ে ও সন্তানের তথ্য গোপন করায় বুবলীর তীর্যক সমালোচনা করেছেন।

বুবলীর স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো—
‘আমরা চেয়েছি একটি শুভ দিনক্ষণ দেখে আমাদের সন্তানকে সবার সম্মুখে আনতে। তবে আল্লাহ যা করেন, ভালোর জন্যই করেন, সেই সুখবরটি জানানোর জন্য আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হয়নি।
শেহজাদ খান বীর, আমার এবং শাকিব খানের সন্তান, আমাদের ছোট্ট রাজপুত্র। আমার সন্তান আমার গর্ব, আমার শক্তি। আপনাদের সবার কাছে আমাদের সন্তানের জন্য দোয়া কামনা করছি।’

বুবলীর পোস্টটি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে পড়ে। এক ঘণ্টায় ১ লাখ ২৩ হাজার লাইক পড়েছে। শেয়ার করেছেন ১১ হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারী। কমেন্টে করেছেন ৫১ হাজার মানুষ।

এর আগে ২৭ সেপ্টেম্বর বুবলী নিজের ফেসবুক পেজে দুটি ছবি প্রকাশ করেছেন। যেখানে নায়িকার বেবিবাম্প দেখা গেছে। ছবির ক্যাপশনে বুবলী লিখেছেন, ‘মি উইথ মাই লাইফ।’ এরপর অনেকগুলো ভালোবাসার ইমোজি। তার ওপরে হ্যাশট্যাগে লেখা ‘থ্রোব্যাক আমেরিকা’।

শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের পুত্র আব্রাম খান জয়ের জন্মদিন তিনি এ ছবি পোস্ট করেন। ওই দিন অপু ও শাকিব সামাজিকমাধ্যমে জয়কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। জয়কে শাকিবের শুভেচ্ছা জানিয়ে পোস্টের পরই মূলত বেবিবাম্পের ছবি প্রকাশ করেছেন বুবলী।

একই দিন সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে বুবলী জানান, বিষয়টি খুব শিগগির পরিষ্কার করবেন। তিনি মুসলিম, তাদের মাঝে সব কিছু শালিনভাবেই হয়েছে।
এ ঘটনায় শাকিব-বুবলী সম্পর্ক নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

কয়েক দিন ধরে শাকিব খান ও শবনম বুবলীকে নিয়ে চলতে থাকা গুঞ্জন প্রসঙ্গে শাকিব ও বুবলী দুজনেরই পারিবারিক ঘনিষ্ঠ কয়েকটি সূত্র জানায়, তারা বিয়ে করেছেন। মা-বাবাও হয়েছেন। তারা এও জানান, বুবলী মা হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড জুয়িশ মেডিকেল হাসাপাতালে। ২০২০ সালের ২১ মার্চ তিনি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। সন্তানের নাম রাখা হয় শেহজাদ খান বীর।

সন্তান জন্মের আগে বুবলী আড়ালে চলে যান। পারিবারিক সূত্রটি জানিয়েছে, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি বিমানে চড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান বুবলী। ৯ মাসের আড়াল ভেঙে তিনি সবার সামনে আসেন। এর পর ব্যস্ত হয়ে পড়েন কাজকর্মে। আড়ালে যাওয়ার আগে বুবলী ‘বীর’ ও ‘ক্যাসিনো’ ছবির শুটিং করেন।

বীর সিনেমায় সন্তান পেটে নিয়ে কাজ করতে গিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন বুবলী। ওই ছবির কলাকুশলীরাও জানান, ছবির গানে নাচের দৃশ্য ধারণ করতে বেগ পেতে হয়েছে তাদের।

এর পর বেশ কিছু দিন যুক্তরাষ্ট্রে অনেকটা আড়ালেই ছিলেন বুবলী। যদিও সেই সময় শোনা যাচ্ছিল মা হতেই যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন বুবলী। তবে তিনি বিষয়টি স্বীকার করেননি।

এর পর ২০২১ সালের জানুয়ারিতে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে বুবলীকে প্রশ্ন করা হয়েছিল মা হতে যাচ্ছেন কিনা? এ প্রশ্নের সরাসরি জবাব দেননি বুবলী। অবশ্য মা হতে যাওয়া কিংবা মা হয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাব কখনই সরাসরি নাকচ করেননি ‘বসগিরি’ নায়িকা।

সব রহস্যভেদ করে আজ বুবলী শাকিবের সঙ্গে নিজের গভীর সম্পর্ক স্বীকার করে নিলেন। তাদের দীর্ঘ প্রেম ও সন্তানের পরিচয়ও আজ ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষী-সমালোচকদের কাছে স্পষ্ট।

এদিকে চিত্রনায়ক শাকিব খানও বুবলীকে বিয়ের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। বুবলীর পোস্টের পর পরই ফেসবুকে প্রায় একই ধরনের পোস্ট দিয়ে জানিয়েছেন শেহজাদ খান তার ও বুবলীর সন্তান।

সন্তানকে প্রকাশ্যে এনেই শুটিংয়ে ফিরছেন শাকিব-বুবলী

শুক্রবার সকালে প্রকাশ্যে এনেছে শাকিব-বুবলীর সন্তান শেহবাজ খান বীর। এরপর থেকেই ‘টক অব দ্য টাউন’ এখন শাকিব-বুবলী। অথচ তারা নির্ভার জীবন যাপন করছেন যেনো। ঘোষণা দিয়েছেন আগামী কাল শুংটিংয়ে ফিরবেন।

তপু খান পরিচালিত ‘লিডার আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার একটি গানের শুটিং বাকি রয়েছে। এই ছবিটির গানটির শুটিং শুরুর মাধ্যমেই শুটিংয়ে ফিরছেন শাকিব-বুবলী।

বুবলী নিজেও অবশ্য তার ফেসবুক হ্যান্ডেলে শুটিংয়ে ফেরার বিষয়টি জানিয়ে একটি ছবি পোস্ট করেছেন, লিখেছেন তপু খানের পরিচালনায় ‘লিডার আমিই বাংলাদেশ’ ছবির প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এদিকে বুবলী কদিন ধরেই ব্যক্তিগত জীবনকে খারাপ সময় পার করছিলেন। নিজের সন্তানের পরিচয় প্রকাশ্যে আনার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। শুক্রবার শাকিব-বুবলী দুজন একই সঙ্গে তাদের ছেলে শেহজাদ খান বীরের ছবি প্রকাশ করেন। আজ এই ঝামেলা মিটে যাওয়ায় আগামীকাল থেকেই শুটিংয়ে ফিরছেন দুজন।

শুটিংয়ে কস্টিউম ডিজাইনার হিসেবে কাজ করছেন পিয়াল হোসেন। বৃহস্পতিবার রাতে তিনিও বুবলীর সঙ্গে একাধিক ছবি পোস্ট দিয়ে লিখেছেন, আমরা ‘লিডার আমিই বাংলাদেশ’ ছবির শুটিংয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি।

তিনি বলেন, কাজ নিয়ে অনেক ব্যস্ত আছি। ধামাকার ওপর ধামাকা আসছে। ধন্যবাদ শাকিব খান এবং তপু খান।

এর আগে সোমবার পরিচালক তপু খান জানিয়েছিলেন, ‘লিডার’-এর বাকি সব কাজ শেষ। শুধু দুটি গানের শুটিং বাকি। গানের শুটিং হলে পুরোপুরি ক্যামেরা ক্লোজ হবে।

‘লিডার আমিই বাংলাদেশ’ অ্যাকশন, রোমান্টিক ও সামাজিক সচেতনতার ছবি। সংলাপ লিখেছেন দেলোয়ার হোসেন দিল এবং যৌথভাবে চিত্রনাট্য করেন দেলোয়ার হোসেন দিল ও পরিচালক তপু খান।

দুই শতাধিক নাটক, বিজ্ঞাপন বানানোর পর ‘লিডার’-এর মাধ্যমে প্রথমবার ছবি বানালেন তপু খান। গেল বছর নির্মাণের শুরু থেকে আলোচনায় এ ছবিটি। পরিচালক জানান, এ বছরই ‘লিডার’ মুক্তি পাবে এটা নিশ্চিত।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply Cancel reply