Black Hole Sound: যেন দানবের ডাক, ভুতুড়ে আর্তনাদ! নাসার প্রকাশ করা ব্ল্যাক হোলের শব্দ হাড়হিম করবে, শুনুন

বিজ্ঞানের চিরকালীন বিষ্ময়গুলির মধ্যে অন্যতম হচ্ছে কৃষ্ণগহ্বরের রহস্য। ইংরাজিতে যা ব্ল্যাক হোল নামে পরিচিত। এই কৃষ্ণগহ্বরের অনেক রহস্যই এখনও অজানা। মানুষের কাছে বিষ্ময় এই বিশালাকার কালো জগৎটি। এ বার সেই ব্ল্যাক হোলেরই একটি বিশেষ শব্দ প্রকাশ করল নাসা। অর্থাৎ ব্রহ্মাণ্ডের সবচেয়ে শক্তিশালী যে গহ্বর, তার এককথায় পরিচয় করাল নাসা।

কিন্তু সেখানে তো শব্দ রেকর্ড করা সম্ভব নয়, তা হলে কী করে এই শব্দ পাওয়া গেল। নাসার বিজ্ঞানীরা বলছেন, কৃষ্ণগহ্বর বা ব্ল্যাক হোল থেকে এক বিশেষ ধরনের তরঙ্গ বাইরের দিকে আসে। সেই তরঙ্গগুলিকে সংগ্রহ করা হয়েছে। সেই তরঙ্গের যে পরিসংখ্যান, সেটিকে ফেলা হয়েছে শব্দের নিরিখে। তার পরেই এই শব্দ পাওয়া গিয়েছে। আক্ষরিক অর্থে ব্ল্যাক হোল ফেরত শব্দের অবস্থায় স্কেল সি-এর থেকে ৫৭ অক্টেভ নীচে। যা মানুষের শ্রবণযোগ্য নয়।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়তে ক্লিক করুন

তথ্যসূত্র: নিউজ এইট্টিন বাংলা

Leave a Reply

Translate »