‘আমার কাছে চলে এলে তামিমার কাছে ধরা খেতে হতো না’ | শাহ হুমায়রা সুবাহ’র

প্রিয় এক্স,

তুমি কী জানো, সেদিন যদি তুমি একটা বার আমার কাছে চলে এসে সবকিছু ঠিক করে নিতে, তাহলে হয়তো আজ তামিমার মতো ২ বাচ্চার মার কাছে তোমার ধরা খেতে হতো না!

আর ধরা খেয়ে এইভাবে আদালতে আদালতে টাকা খরচ করে জামিন নিতে হতো না। তুমি মুখে যতই হাসো কিন্তু তোমাকে দেখলেই আমি বুঝতে পারি তুমি ভালো নেই।

যেখানে প্রাক্তনকেই বোঝেন নাই, সেখানে বর্তমানকে কতটুকু জানেন!

তোমাকে এভাবে অপমানিত হতে দেখে আমার খুব খারাপ লাগছে। এখনো তোমার জন্য তোমার নাম জড়িয়ে আমাকে অনেকেই কমেন্ট করে তোমার নাম লিখে অথচ তুমি এখন অন্য কাউকে নিয়ে আছো!

তোমার সাথে যত কিছুই হোক, এক দিনের জন্য হলেও তো তোমাকে ভালোবেসেছিলাম। তাই যখন দেখি তোমার ক্যারিয়ার নিয়ে তোমার চিন্তা-ভাবনা নেই উল্টা এইসব নিয়ে দৌড়াচ্ছ তা দেখে খুবই দুঃখ পাই।

হয়তো ২/৩ বছরের মধ্যে বিয়ে করে ফেলবো। আর অবশ্যই তোমার মতো আমার স্বামী হবে না। তোমার থেকে অবশ্যই ভালোই হবে। হয়তো টাকা কম থাকতে পারেন তার!

আমার জন্য তুমি দোয়া করো।

তোমার জন্য শুভকামনা রইল। আশা করি, সবকিছু বাদ দিয়ে আবার নতুন করে জাতীয় দলে ফিরে আসবে।
ভালো থেকো সব সময়।

ইতি,
তোমার সবচেয়ে অপছন্দের ব্যক্তি সুবাহ

Read More: পরীমনি বয়স, প্রেমিক, স্বামী, পরিবার, ফটো, ছবি ও জীবনী

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

Leave a Reply

Translate »