ইউলিসিস’ সম্পর্কে যেসব তথ্য আপনি না–ও জানতে পারেন

জেমস জয়েস লিওপোল্ড ব্লুমের উপাখ্যান লেখা শুরু করেছিলেন ১৯০৪ সালের ১৬ জুন। দিনটিকে এখন সারা পৃথিবীর সাহিত্যপ্রেমীরা ব্লুমস ডে হিসেবে উদ্‌যাপন করেন। কিন্তু ১৬ জুনকেই কেন বেছে নিয়েছিলেন জয়েস? কারণ, দিনটি ছিল তাঁর কাছে বিশেষ কিছু। এদিনই ডাবলিনের কোনো এক পার্কের কোনো এক নির্জন বেঞ্চে বসে জেমস ও নোরা প্রথম সাক্ষাৎ করেছিলেন। তারপর দুজনের হৃদয়ে প্রেমের দিন শুরু। প্রেমপত্র বিনিময়… এবং আরও অনেকটা দিন পর বিয়ে। লিওপোল্ডের স্ত্রী মলির চরিত্রটিও তিনি নোরার আদলেই তৈরি করেছিলেন।

 

‘ইউলিসিস’ লেখার সময় ডাবলিনে ছিলেন না জয়েস

 

ইউলিসিস–এর পাতায় পাতায় ডাবলিনের বর্ণনা। আপনি যেখানে বসেই এই উপন্যাস পড়ুন না কেন, চোখের সামনে ডাবলিনকে দেখতে পাবেন। আজ এত বছর পরও আপনি যদি ডাবলিনে বেড়াতে যান, তাহলে রাস্তায় রাস্তায় দেখতে পাবেন লিউপোল্ড ব্লুমের (ইউলিসিস–এর প্রধান চরিত্র) বর্ণনা করা অনেক কিছু। অথচ জেমস জয়েস যখন এটি লিখেছেন, তখন তিনি ডাবলিনে ছিলেন না। ডাবলিনের বর্ণনা তিনি লিখেছিলেন স্মৃতি আর কল্পনা থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রে এক যুগ, ব্রিটেনে ৮ বছর নিষিদ্ধ

একটি মার্কিন সাহিত্য সাময়িকীতে ১৯১৮ থেকে ১৯২০ সাল পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে ছাপা হয়েছিল ইউলিসিস। তারপর ১৯২২ সালে তা বই আকারে প্রকাশিত হয়। কিন্তু প্রকাশের পরপরই উপন্যাসটির বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফির অভিযোগ তুলে যুক্তরাষ্ট্রে এটি নিষিদ্ধ করা হয়। এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ ছিল ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত। আর বিশ্বের সবচেয়ে ‘উদার ও আধুনিক’ বলে খ্যাত মার্কিন সাম্রাজ্যে দীর্ঘ ১২ বছর নিষিদ্ধ ছিল ইউলিসিস! এমনকি যুক্তরাজ্যেও বইটি নিষিদ্ধ ছিল ১৯৩০ সাল পর্যন্ত।

গ্রন্থনা: শাকের এহসান

সূত্র: বার্নস অ্যান্ড নোবেল, ইন্টারেস্টিং লিটারেচার ও র‌্যাগিং গালফ।

জেনে রাখা ভালো

  • ইউলিসিস–এ শব্দ রয়েছে ২ লাখ ৬৫ হাজার।
  • আপনি যদি একবসায় এটি পড়ে শেষ করতে চান, তাহলে সময় লাগবে কমপক্ষে ৩৬ ঘণ্টা।
  • ইংরেজ কবি টেড হিউজ ও সিলভিয়া প্লাথ বিয়ে করার জন্য ১৯৫৬ সালের ১৬ জুনকে বেছে নিয়েছিলেন, শুধুই জয়েস ও ব্লুমসকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য।
  • ইউলিসিস–এর প্রথম সংস্করণটি ছাপা হয়েছিল এক হাজার কপি। সেই প্রথম সংস্করণের একটি কপি ২০০৯ সালের একটি নিলামে বিক্রি হয়েছে ২ লাখ ৭৫ হাজার পাউন্ডে।

Leave a Reply

Translate »