এইমাত্র পাওয়া খবর পাকিস্তান জিতে সকল সকল বাধা অতিক্রম করে জয় দিয়ে শুরু করল পাকিস্তান | বিশ্বকাপে ভারতকে হারিয়ে পাকিস্তানের চমক

  • পাকিস্তানের বিপক্ষে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপের মধ্যে রয়েছে ভারত। রোহিত শর্মার পর একে একে বিদায় নিয়েছেন লোকেশ রাহুল ও সুরিয়া কুমার যাদব।

  • টস জিতে ফিল্ডিং করতে নেমে ভারত শিবিরে শুরুতেই আঘাত হানেন পাকিস্তানের শাহিন শাহ আফ্রিদি। প্রথম ওভারের চতুর্থ বলেই রোহিত শর্মাকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন পাকিস্তান পেসার। গোল্ডেন ডাক দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রোহিত। এরপরের ওভারে বল হাতে নিয়েই লোকেশ রাহুলকে সরাসরি বোল্ড করেন আফ্রিদি। তার জোড়া আঘাতে অনেকটা চাপের মধ্যে পড়ে যায় টিম ইন্ডিয়া।

    প্রথম এক ওভারে ভারত তুলে মাত্র ১ রান। দুই ওভার শেষে স্কোর বোর্ডে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬। দলীয় ৩১ রানে সুরিয়া কুমার যাদবকে উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানের ক্যাচ বানান হাসান আলি। ৮ বলে ১১ রানে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটেন সুরিয়া। এরপর বিরাট ও পন্ত মিলে সেই চাপ সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন। দুজনে মিলে গড়ে তুলেন ৫৪ রানের জুটি। এ সময় তুলনামূল মেরে খেলতে থাকা রিশাভ পন্ত বিদায় নেন শাদাব খানের বলে। পন্ত ৩০ বলে করেন ৩৯ রান।

    পন্ত ফিরে গেলেও স্কোর বড় করতে থাকেন কোহলি। ৪৫ বলে ৪চার ও এক ছয়ে অর্ধশতক পূরণ করেন তিনি। অন্য প্রান্তে থাকে সঙ্গ দেন রবীন্দ্র জাদেজা। তবে বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকতে পারেননি জাদেজা। ১৩ বলে ১৩ রান করে হাসান আলির বলে মোহাম্মদ নেওয়াজের ক্যাচ হয়ে ফেরেন তিনি।

    আরও পড়ুন:  শচীন তেন্ডুলকারের জীবনী

    আফ্রিদি শেষ দিকে তুলে নেন পাকিস্তানের জন্য ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা কোহলিকেও। উইকেটকিপার রিজওয়ানের হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ফেরার আগে ৪৯ বলে করেন ৫৭ রান। এরপর হার্দিক পান্ডিয়ার ১১ ও ভুবনেশ্বর কুমারের ৫ রানে ভর করে ১৫১ রানে পৌঁছায় বিরাট কোহলির দল।

    পাকিস্তানের হয়ে ৩টি উইকেট নেন আফ্রিদি। ৪ ওভারে তিনি রান খরচ করেন ৩১ রান। দুই উইকেট নেন হাসান আলি। একটি করে উইকেট পান শাদাব খান ও হারিস রউফ।

    এই তিনটি কারণে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপে বড় চমক ঘটাতে পারে পাকিস্তান

  • আগামী রবিবার টি২০ বিশ্বকাপে সুপার ১২ পর্বে মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান। আর এই মহারণের মাধ্যমে নিজেদের অভিযান শুরু করবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী।

    এমন পরিস্থিতিতে এই ম্যাচেও ভারতই ফেভারিট, এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এমনকি, স্বয়ং পাকিস্তানের একাধিক কিংবদন্তী ও বিশেষজ্ঞরাও নিজেদের দেশকেই ধরছেই না জেতার জন্য। এই অবস্থায়, পাকিস্তানের সামান্য সম্ভাবনা রয়েছে বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে হারার ধারা রোখার জন্য। এই তিনটি কারণের জেরে ভারতকে হারাতে পারে পাকিস্তান।

  • আগামী রবিবার টি২০ বিশ্বকাপে সুপার ১২ পর্বে মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান। আর এই মহারণের মাধ্যমে নিজেদের অভিযান শুরু করবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী।

    এমন পরিস্থিতিতে এই ম্যাচেও ভারতই ফেভারিট, এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এমনকি, স্বয়ং পাকিস্তানের একাধিক কিংবদন্তী ও বিশেষজ্ঞরাও নিজেদের দেশকেই ধরছেই না জেতার জন্য। এই অবস্থায়, পাকিস্তানের সামান্য সম্ভাবনা রয়েছে বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে হারার ধারা রোখার জন্য। এই তিনটি কারণের জেরে ভারতকে হারাতে পারে পাকিস্তান।

  • ‘ভারতকে হারিয়ে পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতবে’!

  • যাদবকে উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানের ক্যাচ বানান হাসান আলি। ৮ বলে ১১ রানে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটেন সুরিয়া।

    ভারত শিবিরে শুরুতেই আঘাত হানেন পাকিস্তানের শাহিন শাহ আফ্রিদি। প্রথম ওভারের চতুর্থ বলেই রোহিত শর্মাকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন পাকিস্তান পেসার। গোল্ডেন ডাক দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রোহিত। এরপরের ওভারে বল হাতে নিয়েই লোকেশ রাহুলকে সরাসরি বোল্ড করেন আফ্রিদি। তার জোড়া আঘাতে অনেকটা চাপের মধ্যে পড়ে যায় টিম ইন্ডিয়া।

    প্রথম এক ওভারে ভারত তুলে মাত্র ১ রান। দুই ওভার শেষে স্কোর বোর্ডে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬। দলপতি বিরাট কোহলির সঙ্গে এখন মাঠে রয়েছেন রিশাভ পন্ত। ৬ ওভারে স্কোর বোর্ডে ভারতের রান এখন ৩৬। বিরাট অপরাজিত আছেন ২০ রানে।

    এ ম্যাচের আগে স্বস্তিতে নেই পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। বিশ্বকাপে ভারতকে তো নয়ই, কোনো দলকেই হালকাভাবে নিচ্ছেন না তিনি। ভারত ও পাকিস্তান ক্রিকেটের দুই চিরবৈরি ও শক্তিশালী দুই প্রতিপক্ষ। বিশ্বমঞ্চে এ দুদলের লড়াই হলে তো কথাই নেই। নিজ নিজের দলের ক্রিকেটারসহ উত্তেজনা ছড়ায় সমর্থকদের মধ্যেও। তেমনি এ ম্যাচটাও উত্তেজনাপূর্ণ হবে বলে মনে করছেন বাবর।

    বিরাট কোহলিদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ মাধ্যমকে পাকিস্তান দলপতি বলেন, ‘এটা বিশ্বকাপ। এখানে কোনো দলকেই হালকাভাবেই নেওয়ার সুযোগ নেই। ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ মানে তো টান টান উত্তেজনা। আপনি কোনোভাবেই স্বস্তিতে থাকতে পারবেন না। চিন্তা করতে হবে, ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং; তিন ডিপার্টমেন্টে কীভাবে ভালো করা যায়। ওদের বিপক্ষে যে আমাদের বোলিং ইউনিট দুর্বল তা কিন্তু নয়। ওয়ার্মআপ ম্যাচগুলোতে আমরা ভিন্ন কিছু চেষ্টা করেছি।’

  • অন্যদিকে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি এ ম্যাচের আগে জানান, ‘আমরা এই বিশ্বকাপে ভালো খেলতে চেষ্টা করব। আর অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে এখন কিছু বলতে চাই না। এ সম্পর্কে আগেই বলেছি।’ আইপিএলের সুবাদে দীর্ঘদিন সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলেছেন বিরাট কোহলিরা। তাই পিচটাও তাদের খুব পরিচিতই। বিরাট বলেন, আমরা এই পিচগুলো সম্পর্কে ভালো করে জানি। আইসিসি একটা স্ট্যান্ডার্ড মেনে পিচ তৈরি করে থাকে।’

    ভারত একাদশ

    রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, লোকেশ রাহুল, সুরিয়া কুমার যাদব, রিশাভ পন্ত, হার্দিক পান্ডেয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, বরুন চক্রবর্তী, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ শামি ও জাসপ্রীত বুমরাহ।

    পাকিস্তান একাদশ

    বাবর আজম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফখর জামান, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলি, ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, হাসান আলি, হারিস রউফ ও শাহিন শাহ আফ্রিদি।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply

Translate »