কোটালীপাড়ায় ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে মার্কেট নির্মাণ হলেও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা, জনভোগান্তী চরমে

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে বহুতল মার্কেট নির্মাণ করা হলেও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করছে শতশত দোকানীরা। এতে পৌর এলাকার ঘাঘরবাজরে তীব্র যানযট নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে সড়কে চলাচলকারী বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। যানজট নিরসনে জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পৌর কর্তৃপক্ষ। ঐতিহ্যবাহী ঘাঘর বাজারটি শত বছর আগে সৃষ্টি। এ বাজারটি ব্যবসা বাণিজ্যে সমৃদ্ধ।

এখানে শুধু কোটালীপাড়াবাসীই নয়, এখানে বাজার বা কেনাকাটা করেন জেলা সদর গোপালগঞ্জসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলার হাজার হাজার মানুষ। ব্যবসায়ীক কেন্দ্র হিসেবে এর ব্যপ্তি রয়েছে বহু আগের থেকে। তাইতো বাজারটির শ্রীবৃদ্ধির জন্য ঘাঘরবাজারের সন্নিকটে কোটালীপাড়া পৌরসভার উদ্যোগে ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে চারতলা বিশিষ্ট একটি বহুতল মার্কেট নির্মাণ করা হয়।

বিসিএস জাতিসংঘ বিষয়ক বাছাই করা প্রশ্নোত্তর

 

কিন্তু ফুটপাত ব্যবসায়ীরা বেচাকেনা কম হবে এমন অভিযোগ এনে ওই মার্কেটে যেতে চাচ্ছেন না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে র‌্যাগ ডে’র নামে অশ্লীলতা বন্ধে হাইকোর্টের নির্দেশ তারা বাজারটির সড়ক ও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে। এতে প্রতিনিয়ত বাজারের সড়কগুলোতে তীব্র যানযটের সৃষ্টি হচ্ছে। বাজারের মহুয়ার মোড় থেকে চৌরঙ্গী যেতে যেখানে সময় লাগতো মাত্র ৫ মিনিট। সেখানে যানযটের কারণে এখন সময় লাগছে প্রায় আধা ঘন্টা।

সাধারন জ্ঞান – কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য -প্রশ্ন ও উত্তর 2021

এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ছে এলাকার শিক্ষার্থী, রোগীসহ বাজারে আসা ক্রেতা সাধারণ। কোটালীপাড়া উপজেলার একাধিক বাসিন্দা জানান, কিছুদিন হলো ঘাঘর বাজেরর রাস্তা দিয়ে চলাচল করা খুবই কষ্ট হচ্ছে। ছোট ছোট ব্যবসায়ীরা সড়কের ফুটপাত দখল করে দোকান নিয়ে বসেছে। রাস্তার দুইপাশে দোকান বসালে যত বড় রাস্তা হোক তা সংকুচিত হবেই। এর পর রয়েছে ভ্যান ও ইজিবাইক ও মোটরসাইলের চাপ। তারা রাস্তার উপর গাড়ী রেখে কেনাকাটা করে।

রমনা বটমূলে বোমা হামলা: মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত শফিকুল গ্রেফতার

সব মিলে এখন ঘাঘর বাজারের রাস্তাগুলোতে বিরক্তিকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর কার্তিক চন্দ্র বলেন, ঘাঘর বাজারের ফুটপাতগুলো দখলমুক্ত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ৭০কোটি টাকা ব্যয়ে একটি আধুনিক পৌর মার্কেট করে দিয়েছেন।

কিন্তু এ সকল ব্যবসায়ীরা আধুনিক এই মার্কেটে কেন যাচ্ছেননা তাহা আমার বোধগম্য নয়। কুশলা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য সোনিয়া পারভীন বলেন, ঘাঘর বাজারের ফুটপাতগুলো দখল হওয়ায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে যে আমরা নারীরা ভীরের কারণে বাজারে প্রবেশ করতে পাচ্ছিনা। এ ব্যাপারে দ্রুত সময়ের মধ্যে পৌর মেয়রের ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ। এ বিষয়ে ফুটপাতের কয়েকজন ব্যবসায়ীর কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা কোন প্রকার মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। পৌর মেয়র হাজী মোঃ কামাল হোসেন শেখ বলেন, ঘাঘর বাজারের যানযট কমাতে ও ফুটপাত দখলমুক্ত করতে আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমি এ বিষয়ে ব্যবসায়ীদের নিয়ে অনেকবার সভা করেছি।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply

Translate »