কোন টুপির কী নাম

১৮০০ সালের দিকে মানুষ এক ধরনের পেশায় বেশি কাজ করত। একসময় সেই পেশা ফ্যাশনের সঙ্গে জড়িয়ে যায়। এ সময় টুপি তৈরির শ্রমিক বা টুপি বিক্রেতা হিসেবে কাজ করেই জীবিকা চালাত অনেক মানুষ।

পুরুষেরা এ ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত ছিল বলে তারা টুপি পরত; যদিও তা যতটা না ফ্যাশনের অংশ, তার চেয়ে ঢের বেশি তাদের পেশার সঙ্গে সম্পর্কিত বলে তাই। এখন তো নানা ধরনের টুপি ফ্যাশনের গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ।

টুপির রকমফের

 

 

‘হ্যাট’ শব্দটি শুনলেই প্রথমে মাথায় আসে বেসবল ক্যাপের ছবি। জ্যান্টি টপ হ্যাটের কথাও ভাববেন কেউ কেউ। আশ্চর্যজনকভাবে ফ্যাশনজগতে ১০০টিরও বেশি ধরনের হ্যাট বা টুপি রয়েছে, যা অনায়াসেই আপনার ফ্যাশন ওয়ার্ডরোবের অংশ হতে পারে।

 

টুপির আছে শত রকমফের

টুপির আছে শত রকমফের ছবি: সংগৃহীত

বেসবল ক্যাপ

 

 

১৮৬০ সালের দিকে জনপ্রিয় হতে শুরু করে বেসবল ক্যাপ। সেই সময়ে এ ধরনের টুপি পরতেন ব্রুকলিন এক্সেলসিয়রস। সেই থেকেই বেসবল না খেললেও বেসবল ক্যাপ ফ্যাশনের অংশ হিসেবেই পরা হতো।

স্ন্যাপব্যাগ

 

 

এ ধরনের টুপি একেবারেই নতুন যুগের। নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিকে এ টুপি জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে।

 

ড্যাড হ্যাটে এক নারী

ড্যাড হ্যাটে এক নারী ছবি: সংগৃহীত

ড্যাড হ্যাট

 

নাম শুনে আবার মনে করবেন না যে এটি বয়স্কদের টুপি। এটিও নব্বইয়ে দশকের দিকে ফ্যাশনে নতুন মাত্রা যোগ করে। সাদা জিম জুতা ও স্নিকার্সের সঙ্গে এ ধরনের টুপি মানানসই।

 

ট্রাকার হ্যাটে বেকহাম

ট্রাকার হ্যাটে বেকহাম ছবি: সংগৃহীত

ট্রাকার হ্যাট

 

একুশ শতকের প্রথম দশকের ফ্যাশনসচেতনরা এই টুপির কদর বুঝবেন। অ্যাশটন কুচার, ব্রিটনি স্পিয়ার্স ও জাস্টিন টিম্বারলেকের মতো হলিউড তারকারা এ ধরনের টুপি পরতেন। এই টুপি জনপ্রিয়করণে ডেভিড বেকহামের অবদানকেও অস্বীকার করা যাবে না। যদিও এ ধরনের টুপি এখন খুব বেশি ফ্যাশনেবল নয়; তবে আগামী দিনগুলোয় যে আবার জনপ্রিয় হবে না, তা কে জানে!

বেনিজ

 

 

বেনিজ নামটি কীভাবে হলো, তা কি জানেন? বেনিজ শব্দটি এসেছে বিন শব্দ থেকে। বিশ শতকের গোড়ার দিকে বিন শব্দটি ‘মাথামোটা’ অর্থেও ব্যবহৃত হতো। সে সময় থেকেই এই টুপির নামকরণ করা হয় বেনিজ। খুব ঠান্ডা আবহাওয়ার জন্য এ ধরনের টুপি ব্যবহার করা হয়। হলিউড তারকাদের হরহামেশাই এই টুপিতে ক্যাজুয়াল লুকে বাইরে বের হতে দেখা যায়। শীত টেক্কা দিতে আমাদের দেশেও পরা হয় এই টুপি।

 

টপ হ্যাটে ডায়ানা

টপ হ্যাটে ডায়ানা ছবি: সংগৃহীত

টপ হ্যাট

 

 

আঠারো শতকের দিকে খুব অভিজাত শ্রেণির মানুষ এ ধরনের টুপি পরতেন। সেই সময়ে যাঁরা এ ধরনের হ্যাট পরতেন, তাঁদের বলা হতো ‘ড্যান্ডি’। তাঁরা সাদা টাই ও ফ্রক কোটের সঙ্গে এ টুপি পরতেন। এখন খুব ফ্যান্সি অনুষ্ঠান ছাড়া এই টুপি পরার প্রচলন নেই। টপ হ্যাট পরা সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বের নাম চার্লি চ্যাপলিন। প্রিন্সেস ডায়ানাকেও প্রায়ই দেখা গেছে এই টুপিতে।

ফেডরাস

 

 

ফ্যাশনসচেতন নারী বা পুরুষ সবাই এ ধরনের টুপি পছন্দ করেন। কিন্তু জানেন কি, ফরাসি নাটক ‘ফেঁদোরা’ থেকে এর নাম দেওয়া হয়েছে। এই নাটকের রাজকুমারী এ ধরনের টুপি পরেছিলেন, যা পরবর্তী সময়ে ফরাসি নারীদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় আর স্থায়ীভাবে ফ্যাশনের অংশ হয়ে যায়। পরে বড় বড় তারকা, যেমন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বা হলিউড তারকা জনি ডেপকেও দেখা গেছে এই টুপিতে।

 

নানান ধরনের টুপি ঘুরেফিরে আসে ট্রেন্ডে

নানান ধরনের টুপি ঘুরেফিরে আসে ট্রেন্ডে ছবি: সংগৃহীত

আরও নানা পদের টুপি আছে। সেগুলোর ভেতর ট্রাইবি হ্যাট, পর্ক পাইস, হমবার্গ, বেরেটস, ক্লোশ হ্যাট, ফ্ল্যাট ক্যাপ, বোলার বা ডারবাই হ্যাট, কাউবয় হ্যাট, ব্রেটন হ্যাট, আর্মি হ্যাট, পিলবক্সেস, বোটার হ্যাট, পানামা হ্যাট, সান হ্যাটস বা ফ্লপি হ্যাট, বাকেট হ্যাট, শেফ হ্যাট, সেইলর হ্যাট, সান্টা হ্যাট, উইচ হ্যাট, পার্টি হ্যাট, গ্র্যাজুয়েশন হ্যাট ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এগুলো নিয়ে নাহয় আরেক দিন!

 

সূত্র: কোয়ালিটি লোগো প্রোডাক্টস ডট কম

Leave a Reply

Translate »