গ্যাস্ট্রিক কেন হয়? গ্যাস্ট্রিক সমস্যায় করণীয় ও ঘরোয়া সমাধান || Gastic shameshay samadhan

 

কথায় আছে, “পেট ঠাণ্ডা তো দুনিয়া ঠাণ্ডা”। কিন্তু গরম গরম সিঙ্গারা, পুরি দেখলে কি আর নিজেকে সামলানো যায়! মুহূর্তের মধ্যেই ৪-৫ টি সিঙ্গারা খেয়ে এখন পেটে হাত? তা তো হবেই। গ্যাস্ট্রিক হলে কি আর রক্ষা আছে!

যার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা আছে একমাত্র সেই বুঝতে পারে যে খাবার গ্রহণও ঝামেলার হতে পারে। বুকে জ্বালাপোড়া এবং অস্বস্তি সৃষ্টি হওয়ার ফলে না খেয়ে থাকতেও ভালো লাগেনা আবার খেতেও ভালো লাগেনা। এই উভয় সংকট থেকে মুক্তি পাওয়ার কিছু উপায় আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

গ্যাস্ট্রিক বা অ্যাসিডিটির সমস্যাটি প্রায় মানুষের মধ্যেই রয়েছে। পৃথিবীতে গ্যাস্ট্রিক বা অ্যাসিডিটি ভালো করার অসংখ্য ঔষধ রয়েছে। তবে আমরা ওষুধ এর পাশাপাশি ঘরোয়া ভাবে এই রোগটি খবু সহজেই প্রতিরোধ করতে পারি।

কোনো রোগকেই অবহেলা করা উচিত নয়। ছোটখাটো গ্যাস্টিক অনেক সময় বড় রোগের কারণ হয়ে দাড়াতে পারে তাই প্রথম অবস্থাতেই এর সমাধান চিন্তা করুন। ডাক্তারি মেডিসিনের চেয়ে প্রাকৃতিক ঔষধের কার্যকারিতা বহুলাংশে বেশি।

বিভিন্ন রকম প্রাকৃতিক চা যেমন সবুজ চা, পুদিনা চা, তুলসী চা এগুলো হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সমাধান করে। পেটে গ্যাসের সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়ার সবচেয়ে সহজ ঘরোয়া সমাধান হলো আদা খাওয়া। প্রতিবেলা খাবার খাওয়ার পর এক টুকরো আদা মুখে নিয়ে চিবিয়ে রস খান। সম্ভব হলে প্রতিদিন ডাবের পানি খাওয়ার অভ্যাস করুন। তাহলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে। গ্যাস্ট্রিকের ব্যথায় সাথে সাথে আরাম পেতে চাইলে হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন।

পুদিনাপাতা.গুড়,.লং.মাঠা, দারুচিনির ব্যবহার,বেকিং সোডার ব্যবহার, আদার ব্যবহার,লবঙ্গ: ,পুদিনা পাতা,আদা,তুলসী পাতা: ,গুড়: বোরহানি: বেকিং সোডা,লেবুর ব্যবহার,প্রাকৃতিক চা,তেঁতুল পাতা,প্রচুর পানি পান করুন,আদা,ডাবের পানি,আলুর রস

যাদের গ্যাসের সমস্যা আছে বা গ্যাস্ট্রিক হয়ে গেছে, তাদের এ সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে জেনে নিন দারুণ কিছু সমাধান। সম্পূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন এই সমাধানগুলো দূর করবে সাধারণ গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা।

1.পুদিনাপাতা-
পুদিনা পাতার রস গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করতে বহুদিন ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। প্রতিদিন পুদিনা পাতার রস বা পাতা চিবিয়ে খেলে এসিডিটি ও বদহজম থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

2.তুলসী পাতা: ঔষধি গুণে ভরা তুলসী পাতার কথা কে না জানে। এসিডিটি দূর করতেও এটি বেশ কার্যকর। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা শুরু হলে ৫/৬টি তুলসী পাতা চিবিয়ে খেয়ে দেখুন। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর হবে। এছাড়া প্রতিদিন তুলসী পাতা পানির সঙ্গে ব্লেন্ড করে খেলে একেবারে দূর হবে গ্যাস্ট্রিক ও এসিডিটির সমস্যা।

 

3.বোরহানি: বোরহানি গ্যাস্ট্রিক ও এসিডিটি এবং বদহজম থেকে রক্ষা করে। বোরহানি টক দই, বিট লবণ ইত্যাদি এসিডিটিবিরোধী উপাদান দিয়ে তৈরি। প্রতিদিন খাবারের পর এক গ্লাস বোরহানি খাওয়ার অভ্যাস করতে পারলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা অনেকাংশে দূর হবে।

Read More: ১০ মিনিটেই দূর হবে চোখের নিচের কালো দাগ

4.লেবুর ব্যবহার

একটি মাঝারী আকৃতির লেবু চিপে রস বের করে নিন। এরবার লেবুর রসের সাথে আধা টেবিল চামচ বেকিং সোডা ও এক কাপ পানি মিশিয়ে নিন। বেকিং সোডা ভালো করে মিশে যাওয়া পর্যন্ত নাড়ুন। এবার মিশ্রণটি খেয়ে নিন। নিয়মিত খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় আরাম পাওয়া যায়। গ্যাস্ট্রিকের ব্যথায় সাথে সাথে আরাম পেতে চাইলে হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খান। কিছুক্ষণের মধ্যেই ব্যথা কমে যাবে।

5.প্রাকৃতিক চা

বিভিন্ন রকম প্রাকৃতিক চা যেমন সবুজ চা, পুদিনা চা, তুলসী চা এগুলো হজম ক্ষমতা বাড়ায় এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সমাধান করে।

6.প্রচুর পানি পান করুন

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় পানি খাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। সাড়া দিনে প্রচুর পরিমাণে পানি খেলে পেটে এসিড হয় না এবং হজম শক্তি বাড়ে। তাই প্রতিদিন অন্তত ৭ থেক ৮ গ্লাস পানি খাওয়ার অভ্যাস করুন। তাহলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কমে যাবে কিছুদিনের মধ্যেই।

7.লবঙ্গ: গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার তাৎক্ষণিক সমাধান করবে লবঙ্গ। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা শুরু হলে দুটি লবঙ্গ মুখে নিয়ে চিবুতে থাকুন। এবং চুষে রসটা খেয়ে ফেলুন। দেখবেন এসিডিটি দূর হয়ে গেছে কিছুক্ষণের মধ্যেই।

8) বেকিং সোডার ব্যবহার

বেকিং সোডার অ্যাসিডিক উপাদান পাকস্থলীর অতিরিক্তি অ্যাসিডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, গ্যাস দূর করে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার সমাধানে কাজ করে।

  • – ১/৪ চা চামচ বেকিং সোডা ১ গ্লাস পানিতে ভালো করে গুলে নিন।
  • – এই মিশ্রণটি পেটে সমস্যা অনুভূত হওয়ার সময়ে পান করে নিন। এতে দ্রুত ভালো ফলাফল পাবেন।

9) আদার ব্যবহার

আদা গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। আদার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান প্রদাহ ও গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা উপশমে কাজ করে।

  • – ২ কাপ পানিতে ১ টেবিল চামচ আদা কুচি একটু ছেঁচে দিয়ে ফুটাতে থাকুন।
  • – পানি শুকিয়ে ১ কাপ হয়ে এলে এতে ১-২ চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করুন, বেশ ভালো ও দ্রুত ফল পাবেন।
  • – চাইলে শুধু আদা লবণ দিয়ে চিবিয়ে খেয়ে দেখতে পারেন। এতেও অনেক উপকার হবে।

10.জিরা-
এক চা চামচ জিরা ভেঁজে গুড়া করে নিন। এই গুড়াটি একগ্লাস পানিতে মিশিয়ে প্রতিবার খাবারের সময় পান করুন। এতে অনেকটাই সমাধান পাবেন আপনি।

 

11.লং-
আপনার যদি গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকে, তবে লং হতে পারে আপনার সঠিক পথ্য। দুইটি লং মুখে নিয়ে চিবালে এর রস অনেকটা উপকারে আসতে পারে আপনার।

 

12.মাঠা-
দুধ এবং মাখন দিয়ে তৈরি মাঠা আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয়। এসিডিটি দূর করতে টনিকের মতো কাজ করে যদি এর সাথে সামান্য গোলমরিচ গুঁড়া যোগ করেন।

 

13) দারুচিনির ব্যবহার

দারুচিনি গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা সমাধানে বিশেষভাবে কার্যকরী। দারুচিনি অ্যাসিডিটি, পেটে ব্যথা এবং পেটের গ্যাসের সমস্যা সমাধান করে তাৎক্ষণিক ভাবেই।

  • – কফি, ওটমিল কিংবা গরম দুধে দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে পান করুন, খুব দ্রুত ফলাফল পাবেন। তবে যদি দুধে সমস্যা থাকে তাহলে দুধ খাবেন না।
  • – চাইলে পানিতে দারুচিনি গুঁড়ো ফুটিয়ে ছেঁকে মধু মিশিয়ে চায়ের মতো পান করতে পারেন। এতেও সমস্যার উপশম হবে।

14.গুড়: গুড় আপনার বুক জ্বালাপোড়া এবং এসিডিটি থেকে তাৎক্ষণিকভাবে রেহাই দিতে পারে। যখন বুক জ্বালাপোড়া করবে সঙ্গে সঙ্গে একটুকরো গুড় মুখে নিয়ে রাখুন। যতক্ষণ না সম্পূর্ণ গলে যায় ততক্ষণ মুখে রেখে দিন। তবে এ সমাধান অবশ্যই ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য নয়।

15.তেঁতুল পাতা

তেঁতুল পাতা মিহি করে বেটে নিন। এবার তেঁতুল পাতা বাটা এক গ্লাস দুধের সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন পান করুন। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর হয়ে যাবে সহজেই।

16.ডাবের পানি

ডাবের পানি খেলে হজম ক্ষমতা বাড়ে এবং সব খাবার সহজেই হজম হয়ে যায়। এছাড়াও গ্যাসের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাওয়া যায় নিয়মিত ডাবের পানি খেলে। তাই সম্ভব হলে প্রতিদিন ডাবের পানি খাওয়ার অভ্যাস করুন। তাহলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে।

17.আলুর রস

আলু বেটে কিংবা ব্লেন্ডারে ব্ল্রেন্ড করে চিপে রস বের করে নিন। এবার এই রস প্রতিবার খাওয়ার আগে খেয়ে নিন। এভাবে তিন বেলা খাওয়ার আগে আলুর রস খেলে কয়েকদিনের মধ্যেই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে।

Read More: ১০ মিনিটেই দূর হবে চোখের নিচের কালো দাগ

18.মধু গ্যাস্ট্রিক সারাতে সাহায্য করে।

 

আর হ্যা, তৈলাক্ত খাবার যথাসম্ভব বর্জন করুন।কার্বোনেটেড পানীয় (যেমন কোকা কোলা, পেপসি ইত্যাদি), চুইং গাম, এবং স্ট্র দিয়ে সিপ করে করে পান করার অভ্যাসত্যাগ করুন। এগুলোর প্রত্যেকটিই আপনার পাকস্থলীতে গ্যাসের পরিমাণ বৃদ্ধি করে।

আরও পড়ুন:Biography of Buddhist guru Dalai lama || বৌদ্ধ ধর্মগুরু দালাইলামার জীবন কাহিনী

নিচের আরো কিছু টিপস মেনে চলে দেখতে পারেনঃ

১। অতিহার বা অনাহার পরিহার করুন
২। বাঁশি, পঁচা খাবার খাবেন না
৩। সকালে খালি পেটে কমপক্ষ্য আধালিটার এবং প্রতিবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পর কমপক্ষে আধালিটার পানি পান করুন
৪। নিয়মমত সঠিক সময়ে খাবার খাবেন
৫। দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকুন
৬। মাদক দ্রব্য ও ধুমপান পরিহার করুন
৭। পরিমিত ঘুমাতে হবে।
৮। পায়খানা ঠেকাবেন না
৯। পেট খালি না রাখতে অল্প অল্প খাবার কয়েকবার খান
১০। বেমী আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন
১১। চা পান কম করবেন
১২। খাওয়ার পর একটু হাঁটাহাটি করবেন
১৩। রিচ ফুড কম খাবেন
১৪। ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলুন
১৫। খাবার ভালভাবে চিবিয়ে খান
১৬। সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে হাফ লিটার পানি পান করুন, বা ইসভগুলের সরবত (এসভ্গুল + পানি+ চিনি/মিশরী) খেলে পেট ভালো থাকে।
১৭। তৈলাক্ত ও বেশি মসলাযুক্ত খাবার পরিহার করুন
১৮। কাঁচা পেপের তরকারী পেট ভালো রাখতে সাহায্য করে
১৯। বেল বা পাকা পেপের শরবত গ্যাস্ট্রিক এর প্রবলেম দূর করতে সাহায্য করে
২০। বাসী খাবার খেলেও গ্যাস্ট্রিক হতে পারে, তাই বাসী খাবার খাবেন না

এ নিয়মগুলো মেনে চললে গ্যাস্ট্রিক আপনার বশে আসতে বাধ্য। তারপরও সমস্যা থাকলে আপনার ঔষধ খাবার দরকার হতে পারে তাই এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

dysentery, diarrhoea, cholera etc. Coconut water is the best choice. গ্যাস্ট্রিক দূর করার সহজ ৭ উপায়, Easy way to reduce gastric , Bangla Health Tips গ্যাস্ট্রিক সমস্যা ও সমাধান যে কাজটি করলে আর কখনোই আপনার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকবে না গ্যাস্ট্রিক সমস্যা ও সমাধান ,পুদিনাপাতা.গুড়,.লং.মাঠা, দারুচিনির ব্যবহার,বেকিং সোডার ব্যবহার, আদার ব্যবহার, লবঙ্গ,পুদিনা পাতা,আদা,তুলসী পাতা: ,গুড়: বোরহানি: বেকিং সোডা,লেবুর ব্যবহার,প্রাকৃতিক চা,তেঁতুল পাতা,প্রচুর পানি পান করুন,আদা,ডাবের পানি,আলুর রস,দুধ,গ্যাস্ট্রিক, গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা, গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান, গ্যাস্ট্রিক সমস্যা ও সমাধান, গ্যাস্ট্রিক সমস্যার ঘরোয়া সমাধান, গ্যাস্ট্রিক দূর করার উপায়, গ্যাস্ট্রিক থেকে বাচার উপায়, গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তির উপায়, গ্যাস্ট্রিক হলে করনীয়, গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ, গ্যাস্ট্রিক এর ঘরোয়া ঔষধ, এসিডিটি, এসিডিটি থেকে মুক্তির উপায়, এসিডিটি দূর করার উপায়, gastric problem solution, স্বাস্থ্য টিপস, স্বাস্থ্য সমাধান, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা, স্বাস্থ্য প্রতিদিন, Bangla Health Tips, Bangla Healthযে কাজটি করলে আর কখনোই আপনার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকবে না,গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা,গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করার ঘরোয়া উপায়,গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান,গ্যাস্ট্রিক এর ব্যাথা,গ্যাস্ট্রিক থেকে বাচার উপায়,গ্যাস্ট্রিক এর লক্ষন,গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ,গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তির উপায়,হেলথ টিপস,স্বাস্থ্য টিপস,লাইফস্টাইল,পুরুষের স্বাস্থ্য,বাংলা সাস্থ্য টিপস,চিকিৎসা,bangla health tips,health tips,lifestyle,health tips bangla,গ্যাস্ট্রিক সমস্যা যে কাজটি করলে আর কখনোই আপনার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থাকবে না গ্যাস্ট্রিক এর ব্যাথা গ্যাস্ট্রিক আলসার গ্যাস্ট্রিক থেকে বাচার উপায় গ্যাস্ট্রিক কেন হয় গ্যাস্ট্রিক এর লক্ষন গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তির উপায় গ্যাস্ট্রিক এর ঔষধ গ্যাস্ট্রিক ভালো করার ৫টি ঘরোয়া সমাধান জানুন গ্যাস্ট্রিক সমস্যা সমাধানে পানি পান গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তির উপায় গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ খাচ্ছেন? থামুন! প্লীজ এড়িয়ে যাবেন না! বাঁচতে চাইলে, এখনই পড়ুন গ্যাস্ট্রিক সমস্যার ৭টি ঘরোয়া প্রতিকার সমস্যা যখন গ্যাস্ট্রিক – করণীয় ও ঘরোয়া সমাধান গ্যাস্ট্রিক সমস্যায় করণীয় ও ঘরোয়া সমাধান , Gastic shameshay samadhan , Gastric troubles and domestic solutions গ্যাস্ট্রিক সমস্যায় করণীয় ও ঘরোয়া সমাধান , Gastic shameshay samadhan,Gastric troubles and domestic solutions, গ্যাস্ট্রিক সমস্যা ও সমাধান, পুদিনাপাতা.গুড়, .লং.মাঠা, দারুচিনির ব্যবহার, বেকিং সোডার ব্যবহার, আদার ব্যবহার, লবঙ্গ:, পুদিনা পাতা, আদা, তুলসী পাতা:, গুড়: বোরহানি: বেকিং সোডা, লেবুর ব্যবহার, প্রাকৃতিক চা, তেঁতুল পাতা, প্রচুর পানি পান করুন, ডাবের পানি, আলুর রস, দুধ, গ্যাস্ট্রিক, গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা, গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান, গ্যাস্ট্রিক সমস্যার ঘরোয়া সমাধান, গ্যাস্ট্রিক দূর করার উপায়, স্বাস্থ্য টিপস, হেলথ বাংলা, যৌন টিপস, লাইফস্টাইল, যৌনমিলন টিপস, পুরুষের যৌন দুর্ববলতা, যৌন রোগ, নারীর স্বাস্থ্য, গ্যাসট্রিক দূর করুন সহজেই, এসিডিটি, গ্যাসট্রিক, গ্যাস্ট্রিক কিভাবে দূর করা যায়, গ্যাস্ট্রিকের ঔষধ, গ্যাস্ট্রিক আলসার, গ্যাস্ট্রিক থেকে বাচার উপায়, গ্যাস্ট্রিক এর লক্ষন, গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তির উপায়, গ্যাস্ট্রিক সমস্যার সমাধান, গ্যাস্ট্রিক এর সমাধান, পেটে গ্যাস হলে করনীয়, গ্যাস্ট্রিক বা এসিডিটির সমস্যা

Leave a Reply Cancel reply