চুইঝাল কেন খাবেন? | চুইঝাল চাষে স্বাবলম্বী হচ্ছে যশোরের অনেক পরিবার

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলা বাগেরহাট, খুলনা, নড়াইল, যশোর, সাতক্ষীরা এলাকায় জনপ্রিয় একটি ঝাল হলো চুইঝাল। বর্তমানে দেশের অন্যান্য জেলাতেও ঝাল হিসেবে এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে।

চুইলতার শিকড়, কাণ্ড, পাতা, ফুল- ফল সবই ভেষজ গুণসম্পন্ন। এছাড়াও মসলা হিসেবেও এটি ব্যবহৃত হয়। তবে ঝাল হিসেবে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় হাঁসের মাংস ও গরুর মাংস রান্না করতে।

মূলত,রান্নার জন্যে চুইঝালের কাণ্ড ব্যবহার করা হয়। চুইঝালে দশমিক ৭ শতাংশ সুগন্ধি তেল থাকে। এছাড়াও এতে রয়েছে আইসোফ্লাভোন, অ্যালকালয়েড, পিপালারিটিন, পোপিরন, পোলার্টিন, গ্লাইকোসাইডস,মিউসিলেজ, গ্লুকোজ, ফ্রুকটোজ, সিজামিন, পিপলাস্টেরল থাকে।

চুই এর শিকড়ে রয়েছে ১৩.১৫ শতাংশ পিপারিন।

আসুন এবার জেনে নিই চুইঝালের উপকারিতা।

সমূহরুচি বাড়াতে

সমূহরুচি বাড়াতে খাবারের রুচি বাড়াতে ও ক্ষুধামন্দা দূর করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

ক্যানসার প্রতিরোধে

এতে প্রচুর পরিমাণে আইসোফ্লাভোন ও অ্যালকালয়েড নামক ফাইটোক্যামিকাল রয়েছে যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে এবং ক্যানসার প্রতিরোধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

হৃদরোগ প্রতিরোধে

দেহে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে এটি হৃদরোগ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

পাকস্থলীর সমস্যা দূরীকরণে

পাকস্থলী ও অন্ত্রের প্রদাহ দূর করে। তাছাড়া গ্যাস্ট্রিক ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

মানসিক প্রশান্তিতে

স্নায়ুবিক উত্তেজনা ও মানসিক অস্থিরতা প্রশমন করে।

ব্যথা দূর করতে

আমাদের শরীরের বিভিন্ন ধরনের ব্যথা দূর করে শরীর সতেজ রাখতে সহায়তা করে।

ঘুমের ওষুধ হিসেবে

এটি ঘুমের ওষুধ হিসেবে কাজ করে এবং শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে সাহায্য করে।

প্রসূতি ব্যথা

প্রসূতি মায়ের প্রসব-পরবর্তী ব্যথা প্রশমনে ভালো কাজ করে চুইঝাল। সদ্যপ্রসূতি মায়েদের শরীরের ব্যথা কমাতে চুইঝাল ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

অ্যাজমা ও ব্রংকাইটিস রোগের ওষুধ হিসেবে

অ্যাজমা ও ব্রংকাইটিস রোগের ওষুধ হিসেবে কাজ করে।ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাকজনিত রোগপ্রতিরোধে চুইঝাল বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাকজনিত রোগপ্রতিরোধে সাহায্য করে।

সুতরাং, নিঃসন্দেহে বলা যায় যে মরিচের বিকল্প হিসেবে চুইঝালের জনপ্রিয়তা বাড়লে দেশের হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। একই সঙ্গে ভেষজ গুণ থাকার কারণে অনেক রোগব্যাধির আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।
শিক্ষার্থী ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগ, জীববিজ্ঞান অনুষদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।

চুইঝাল চাষে স্বাবলম্বী

কৃষি সংবাদ ডেস্কঃ

চুইঝাল চাষে স্বাবলম্বী ঃ ওষুধি গুণ সম্পন্ন চুই ঝাল চাষ করে স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছে যশোরের অনেক পরিবার। অল্প পুঁজি ও কম পরিশ্রমে বেশি লাভ হওয়ায় এখানে লতা জাতীয় মসলার চাষ বাড়ছে।
দীর্ঘ বছর ধরে যশোরে চুই ঝাল একটি জনপ্রিয় মসলা। মাংস ছাড়াও বিভিন্ন খাবারের এই চুই ঝাল ব্যবহার হয়ে থাকে। এ অঞ্চলে চুই ঝালের কদর দিনদিন বাড়ছে। বাসাবাড়ি, হোটেলসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের খাবারে চুই ঝাল ব্যবহার করা হচ্ছে।
চুই লতা জাতীয় গাছ। কাণ্ড থেকে বের হওয়া আকর্ষিক বিশেষভাবে রোপণ করলেই গাছ হয়। বাড়ির পাশে থাকা আম, সুপারিসহ বিভিন্ন গাছের গোড়া থেকে একটু দ‚রে গর্ত করে চুই গাছের কাটিং লাগিয়ে এ মসলা জাতীয় ফসলের চাষ হয়। এই গাছের কাণ্ড মসলা হিসেবে ব্যবহার হয়।

কম খরচ ও স্বল্প পরিশ্রম এবং সবসময় পাওয়া যায় বলে দামও ভালো পাওয়া যায়। যার ফলে চুই ঝাল চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।
কৃষকরা বলেন, এক একটি চুই গাছ ১০-১৫ বছর পরে ১৫-২০ হাজার টাকায় বিক্রি করা যায়।
যশোর পুলিশ হাসপাতালের প্রাক্তন সুপার ডা. রবিউল আলম বলেন, চুই ঝাল রুচিবান্ধব। এছাড়া, পেটের পিড়া থেকে শুরু করে অনেক রোগের উপশম করে।

যশোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক সুশান্ত কুমার তরফদার বলেন, স্থানীয় কৃষি বিভাগ চুই ঝাল চাষে কৃষকদের নানাভাবে সহায়তা ও প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসেবে মতে যশোরে ৫০ হাজার চাষী চুই ঝাল চাষে জড়িত।

 

চুই ঝাল এর দাম, চুই ঝাল দিয়ে গরুর মাংস রান্না, চুই ঝাল কোথায় পাওয়া যায়, চুই ঝাল চাষ পদ্ধতি, চুই ঝাল রেসিপি, চুই ঝাল গাছের ছবি, চুই ঝাল অনলাইন চুই ঝাল সংরক্ষণ,chui jhal chicken recipe, chui jhal online, chui jhal price in bd, chui jhal mutton, chui jhal restaurant, chui jhal benefits chui jhal ki

Leave a Reply

Translate »