১০ মিনিটেই দূর হবে চোখের নিচের কালো দাগ

মুখের ত্বকের নানান সমস্যার মধ্যে সবচেয়ে বিরক্তিকর হল চোখের নীচের কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেল! দৈনিক ব্যস্ত রুটিন এবং একটি অনিয়মিত জীবনধারা চোখের নীচে ডার্ক সার্কেলের সম্ভাবনাকে এগিয়ে নিয়ে যায়।

এই ডার্ক সার্কেল আমাদের প্রকৃত বয়সের চেয়ে অনেক বেশি বয়স্ক দেখায়। চোখের নীচের ডার্ক সার্কেল থেকে মুক্তি পেতে আমাদের বেশ কিছুটা ধৈর্য এবং প্রচুর পরিমাণে শৃঙ্খলা লাগবে।

চলুন জেনে নেয়া যাক ঘরোয়া উপায়ে ডার্ক সার্কেল থেকে মুক্তির উপায়:

কোল্ড কম্প্রেস: কোল্ড কম্প্রেস আপনার ত্বকের জন্য বিস্ময়কর কাজ করে। আপনি এটি সকালে বা সন্ধ্যায় চেষ্টা করতে পারেন।

আপনাকে যা করতে হবে তা হল আক্রান্ত স্থানে প্রায় ১০ মিনিটের জন্য একটি কোল্ড কম্প্রেস প্রয়োগ করুন। আরও ভাল, যদি আপনার মাস্ক থাকে তবে আপনি এটি কিছু সময়ের জন্য ফ্রিজে রাখতে পারেন। দিনে দুবার সেটা বের করে মুখে রাখতে পারেন। এটি আপনার চোখের নীচের ডার্ক সার্কেল কমানোর সবচেয়ে সহজ উপায়।

শসার রস+লেবুর রস: শশা এবং লেবুর সংমিশ্রণ আপনার ত্বকের নানান অসুস্থতার চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সমান ভাগে শসা এবং লেবুর রস মেশানোর চেষ্টা করুন। তারপর আপনার চোখের নীচের সার্কেলগুলিতে এই মিশ্রণটি তুলোর ছোট বল দিয়ে আস্তে আস্তে লাগিয়ে নিন। আপনার চোখে লেবুর রস যাতে না ঢুকে যায় সে ব্যাপারে খেয়াল রাখবেন।

১০ থেকে ১৫ মিনিট পর গরম জল দিয়ে মুখ ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।

টমেটো: টমেটোর মধ্যে লাইকোপিনের পরিমাণ বেশি থাকে। লাইকোপিন নরম ত্বক তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে। সেই সঙ্গে চোখের নিচে ডার্ক সার্কেল কমাতেও সাহায্য করে।

Read More: হেঁচকিতে অস্বস্তি? জেনে নিন সমাধান,ঘরোয়া পদ্ধতি হেঁচকি কমানোর উপায়

আপনার চোখের নীচের কালো দাগ থেকে মুক্তি পেতে লেবুর রসের সঙ্গে সমান অনুপাতের টমেটোর রস মিশিয়ে নিন।

তারপরে চোখের নীচের অংশে এটি প্রয়োগ করতে একটি তুলোর বল বা মেকআপ রিমুভার প্যাড ব্যবহার করুন। সমাধান পেতে প্রায় ১০ মিনিটের জন্য রেখে দিন।

ঠান্ডা চায়ের ব্যাগ: ডার্ক সার্কেলের চিকিৎসার জন্য টি ব্যাগও ব্যবহার করা যেতে পারে। সবুজ চায়ের মতো অনেক চায়ের মধ্যেই অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের অতিরিক্ত সুবিধা রয়েছে। এতে প্রদাহবিরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা আপনার চোখের নীচে থাকা দাগগুলি কমাতে সাহায্য করে।

একটি চা ব্যাগ পরিষ্কার জলে ভিজিয়ে রাখুন এবং তারপর ৩০ মিনিটের জন্য তাকে ফ্রিজে রাখুন। এবারে আপনার চোখের নীচে টি ব্যাগ রাখুন। তারপর দেখুন এর ফলাপল।

চোখের নিচে ফোলার কারণ

  • অপর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম,
  • অতিরিক্ত লবণ গ্রহণ,
  • থাইরেয়ড সমস্যা,
  • বংশগত সমস্যা,
  • অনিয়মিত পিরিয়ড,
  • অতিরিক্ত কান্না,
  • স্ট্রেস,
  • অ্যালার্জির সমস্যা ইত্যাদি ।

ডার্ক সার্কেলের কারণ

  • অপর্যাপ্ত ঘুম,
  • পানিশূন্যতা,
  • দেহে আয়রনের ঘাটতি,
  • বংশগত সমস্যা,
  • ধূমপান ইত্যাদি।

চোখের নিচের ফোলাভাব এবং কালো দাগ দূর করার ৭ টি ঘরোয়া উপায় 

চোখের ফোলাভাব এবং ডার্ক সার্কেল দূর করার অনেকগুলো উপায় আছে। তবে আজকে আমি আলোচনা করব ৭ টি ঘরোয়া উপায় যার সাহায্যে আপনি খুব দ্রুত চোখের নিচের কালোদাগ ও পাফিনেস থেকে রেহাই পাবেন।

আলু  

আলুতে রয়েছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি এনজাইম, যা চোখের নিচের ফোলাভাব এবং ডার্কসার্কেল দূর করতে সাহায্য করে।

ফোলাভাব কমাতে যেভাবে আলু ব্যবহার করবেন-

  • আলুকে হাফ ইঞ্চি মোটা করে কয়েক টুকরা স্লাইস করে নিন।
  • একটু বড় করে কাটবেন, যেন চোখের পাতা এবং চোখের চারপাশে ভালোভাবে ঢেকে যায়।
  • দুই টুকরা আলুর স্লাইস দুই চোখে দিয়ে রাখুন।
  • ১০ মিনিট পর পুরাতন আলু ফেলে দিয়ে নতুন আলু চোখের উপরে দিন। এই পদ্ধতি বেশ কয়েকবার পুনরাবৃত্তি করুন।
  • এরপর চোখ ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নারকেল তেল লাগান। আলুর রস স্কিনকে ড্রাই করে ফেলে, নারকেল তেল এই ড্রাইনেস কমাতে সাহায্য করে।

ডার্ক সার্কেল কমানোর জন্য যেভাবে ব্যবহার করবেন- 

  • আলুর রস, লেবুর রস এবং বেকিং সোডা দিয়ে পেস্ট তৈরি করতে পারেন।
  • চোখের নিচে ২০ মিনিট রাখুন।
  • তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ডিমের সাদা অংশ

ডিমের সাদা অংশ চোখের চারপাশের ত্বক টানটান রাখতে সাহায্য করে, বলিরেখা কমায় । এছাড়াও চোখের মাস্ক হিসাবে বেশ কার্যকর।

যেভাবে ডিমের সাদা অংশ  ব্যবহার করবেন-

  • ফ্রিজে রাখা ঠান্ডা দুটি ডিমের সাদা অংশ ভালো করে ফাটিয়ে নিন।
  • সাথে কয়েক ফোঁটা গোলাপজল মিশিয়ে নিন।
  • এবার একটি ব্রাশ ডিমের সাদা অংশের মধ্যে ডুবিয়ে চোখের নিচে লাগান।
  • ১০- ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন।
  • ভাল ফল পাওয়ার জন্য প্রতিদিন এটি ব্যবহার করুন।

টি- ব্যাগ

কালো বা গ্রীন টি -ব্যাগ উভয়েই চোখের নিচের ফোলা কমাতে সাহায্য করে থাকে। চা পাতায় অ্যান্টি-ইরিট্যান্ট উপাদান আছে যা চোখের নিচের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে।

ফোলাভাব কমাতে যেভাবে টি- ব্যাগ ব্যবহার করবেন-

  • টি-ব্যাগগুলো ফ্রিজে রাখুন।
  • খুব ঠাণ্ডা হয়ে গেলে টি-ব্যাগ গুলো চোখের উপরে ১০-১ ৫ মিনিট দিয়ে রাখুন।
  • ১৫ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

শসার রস 

আমরা সবাই জানি ডার্ক সার্কেল দূর করার জন্য শসা বেশ কার্যকর। শুধু ডার্ক সার্কেল নয়, চোখের ফোলাভাব দূর করতেও শসা বেশ কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

যেভাবে  শসার রস ব্যবহার করবেন- 

  • পরিমান মত শসা বেঁটে নিন শসার রস তৈরি করে নিন।
  • একটি তুলোর বল বা কটন প্যাডে শসার রস লাগান।
  • চোখের নিচে এটি দিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট।
  • ১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

টমেটো

টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে লাইকোপিন রয়েছে। এটি কার্ডিওভাসকুলার, চোখ এবং ত্বকের জন্য উপকারী। লাইকোপিন স্কিনকে নরম কোমল করার সাথে সাথে চোখের নিচে ডার্ক সার্কেল কমাতে সাহায্য করে। টমেটোর রস ডার্ক সার্কেল দূর করার পাশাপাশি চোখের ফোলাভাবও দূর করতে সাহায্য করবে।

যেভাবে  টমেটোর রস  ব্যবহার করবেন-

  • পরিমান মত টমেটোর রস নিয়ে একটি তুলোর বল ভেজান।
  • ভেজা তুলোর বল চোখের নিচে দিয়ে রাখুন ১০-১২ মিনিট ।
  • তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
  • এটি প্রতিদিন দুইবার ব্যবহার করুন।

এছাড়া টমেটোর রস, লেবুর রস এবং পুদিনা পাতা দিয়ে জুস বানিয়ে পান করতে পারেন । এটি ত্বক সুস্থ রাখার পাশাপাশি আপনার স্বাস্থ্যের সার্বিক উন্নতি করবে।

রোজ ওয়াটার

গোলাপ ফুলের পাপড়ির নির্যাস থেকে তৈরি হয় গোলাপ জল, যা আমরা সবাই রোজ ওয়াটার নামেই বেশি চিনি। মন মাতানো সুঘ্রাণের পাশাপাশি রোজ ওয়াটার ত্বকের ক্লান্তি দূর করে ত্বককে সজীব ও সতেজ করে তোলে।

যেভাবে রোজ ওয়াটার  ব্যবহার করবেন-

  • একটি বাটিতে পরিমান মতন রোজ ওয়াটার নিন।
  • এখন একটি কটন প্যাড, রোজ ওয়াটারে কয়েক মিনিট রেখে ভালোভাবে ডুবিয়ে নিন।
  • এখন কটন প্যাডটি কয়েক মিনিট পর তুলে আপনার বন্ধ চোখের আইলিডের উপর ১৫ মিনিট রেখে দিন।
  • দৈনিক ২ বার এই প্রসেসটি ফলো করুন।

সুইট অ্যামন্ড তেল

সুইট অ্যামন্ড তেল  চোখের নিচের কালোদাগ দূর করতে বেশ ভালোভাবে কাজ করে। এছাড়াও স্কিন টোন উজ্জ্বল করে।

যেভাবে  সুইট অ্যামন্ড তেল  ব্যবহার করবেন-

  • একটি কটন বলে ২-৩ ড্রপ তেল নিন।
  • আপনার চোখের নিচে ডার্ক সার্কেলে অ্যাপ্লাই করুন।
  • চোখের নিচের ত্বক যেহেতু খুবই সেন্সেটিভ তাই আঙ্গুলের ডগা দিয়ে আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করে নিন।
  • সারারাত চোখের নিচে তেলটি রেখে ঘুমিয়ে পড়ুন।
  • সকালে ধুয়ে ফেলুন।

যতদিন না পর্যন্ত ডার্ক সার্কেল না যাচ্ছে, প্রতি রাতে ঘুমুতে যাওয়ার আগে এই পদ্ধতি ফলো করুন।

চোখের নিচের ফোলাভাব ও কালো দাগ প্রতিকারের উপায়

প্রবাদে আছে, “Prevention is better than cure”. তাই চোখের ফোলাভাব ও ডার্ক সার্কেল প্রতিকার করতে কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত। নিয়মগুলো হচ্ছে-

  • প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ ঘন্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন।
  • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। এটি শরীর হাইড্রেইড রাখতে সাহায্য করবে।
  • পুষ্টিকর খাবার খান।
  • চোখের ব্যায়াম করুন।
  • চোখের মেকআপ সঠিক পদ্ধতিতে তুলুন।
  • দুশ্চিন্তা কম করবেন।

তথ্যসূত্র : টিভি নাইন বাংলা নিউজ

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন

চোখের নিচের কালো দাগ সারানোর উপায়, চোখের নিচের কালো দাগ কেন হয়, পুরুষের চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার ক্রিম, টুথপেস্ট দিয়ে চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার উপায়, চোখের নিচে কালো দাগ কোন রোগের লক্ষণ, মেয়েদের চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার উপায়, বাচ্চাদের চোখের নিচে কালো দাগ, চোখের কালো দাগ দূর করতে লেবু

Leave a Reply

Translate »