তিউনিসিয়ার রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম থাকছে না : প্রেসিডেন্ট

ঘোষণা দেয়া হয়েছে, তাতে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম থাকছে না বলে ইঙ্গিত দিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট কায়েস সাঈদ। তিনি বলেছেন, ধর্ম জনগণের, রাষ্ট্রের নয়মঙ্গলবার তিউনিসিয়ার সর্বপ্রথম ফ্লাইটের হজযাত্রীদের বিদায় দানকালে কায়েস সাঈদ এ কথা বলেন।

 

এ সময় তিনি আরো বলেন, ধর্মের (ইসলাম) সম্পর্ক জনগণের সাথে। আর রাষ্ট্র ইসলামী শরীয়তের লক্ষ্য বাস্তবায়নে কাজ করবে। আর নতুন সংবিধানে ইসলামের লক্ষ্য বাস্তবায়নেই কাজ করা হবে

 

এদিকে দেশটিতে একটি নতুন প্রজাতন্ত্রের জন্য গঠিত উপদেষ্টা বোর্ডের প্রধান সাদিক বিলাইদ নতুন সংবিধানে তার প্রথম অনুচ্ছেদটি ঢেলে সাজানোর সম্ভবনার ওপর প্রাধান্য দিয়েছেন। ২০১৪ সালে প্রণীত সংবিধানের ওই অনুচ্ছেদে বলা আছে-তিউনিসিয়া একটি স্বায়ত্বশাসিত, সার্বভৌম ও স্বাধীন রাষ্ট্র, তার ধর্ম ইসলাম ও ভাষা আরবি। আর তার আইনব্যবস্থা হচ্ছে প্রজাতান্ত্রি

 

প্রেসিডেন্ট কায়েস সাঈদ ওই সময় বলেন, নতুন সংবিধানে আমরা এমন একটি জাতি নিয়ে আলোচনা করব, যাদের ধর্ম ইসলাম, রাষ্ট্রের নয়।ক।।।

এদিকে দেশটিতে একটি নতুন প্রজাতন্ত্রের জন্য গঠিত উপদেষ্টা বোর্ডের প্রধান সাদিক বিলাইদ নতুন সংবিধানে তার প্রথম অনুচ্ছেদটি ঢেলে সাজানোর সম্ভবনার ওপর প্রাধান্য দিয়েছেন। ২০১৪ সালে প্রণীত সংবিধানের ওই অনুচ্ছেদে বলা আছে-তিউনিসিয়া একটি স্বায়ত্বশাসিত, সার্বভৌম ও স্বাধীন রাষ্ট্র, তার ধর্ম ইসলাম ও ভাষা আরবি। আর তার আইনব্যবস্থা হচ্ছে প্রজাতান্ত্রিক।

প্রেসিডেন্ট কায়েস সাঈদ ওই সময় বলেন, নতুন সংবিধানে আমরা এমন একটি জাতি নিয়ে আলোচনা করব, যাদের ধর্ম ইসলাম, রাষ্ট্রের নয়।

তার মতে- সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো রাষ্ট্রের ঐক্য। ২০১৪ সালের সংবিধানের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ওই সংবিধান থেকে যা পাই, তা রাষ্ট্রকে বিভক্ত করে ফেলে। কিন্তু এবারের নতুন সংবিধানের মূল বৈশিষ্ট হবে রাষ্ট্রের ঐক্য।

সূত্র : আলজাজিরা ও আনাদোলু এজেন্সি

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply

%d bloggers like this: