নতুন জামা’ই উ’ধাও… এলাকায় তোলপাড়,বি’ধবা শা’শুড়ীকে নিয়ে

বি’ধবা শা’শুড়ীকে নিয়ে নতুন জামা’ই উ’ধাও… এলাকায় তোলপাড়
বি’ধবা শা’শুড়ীকে নিয়ে নতুন জামা’ই উ’ধাও… এলাকায় তোলপাড়

গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ১ বছর আগে আকারুলে সাথে ধ’র্ম জামাই শাশুড়ী’ স’ম্পর্ক গড়ে বিধবা আসমার। আসমার স্বা’মী না থাকার সুবাদে তাদের মধ্যে স’ম্পর্ক গভীর হতে থাকে। শাশুড়ী আসমার পরিবার ছেলে স’ন্তান ও কর্ম’ক্ষম বছর দেড়েক আগে ধ’র্ম জামাই-শাশুড়ী সম্প’র্ক গড়ে ওঠে ববিতা ও আকারুলের সাথে।

সাবালক স’ন্তানও রয়েছে তাদের। কিন্তু স্ত্রী’কে ছেড়ে যে বিধবা ধর্ম’শাশুড়ির প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েছেন জামাই আকারুল তা কেউ ঘুণা’ক্ষরেও টের পায়নি। শেষে সুযোগ বুঝে স্ত্রী-স’ন্তান’কে ফে’লে বিধবা ধর্ম শাশুড়িকে নিয়ে পালিয়ে গেলেন আকারুল নামের জামাই।

Read Mor: পাকিস্তানে একটি ছাগলকে যৌন নিপীড়ণ করে হত্যা

তারপর থেকে ৩ স’ন্তানকে নিয়ে অসহায় অবস্থা স্ত্রীর। এমনই ঘ’টনা ঘটেছে বৃস্পতিবার (২ এপ্রিল) ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজে’লার গোপালপুর গ্রামে।জামাই আকারুল হোসেন (৪০) ওই গ্রামের মৃ’ত মজিবর শেখের ছেলে ও শাশুড়ী আসমা খাতুন (৩৫) একই গ্রামের মৃ’ত ফারুক হোসেন স্ত্রী।

তবে তাদের চলাফেরা গতিবিধি স’ন্দে’হজনক হলে গ্রামবাসীদের মধ্যে কানাঘুষা শুরু হয়। তবে বিধবা শাশুড়ীর নগদ টাকা পয়সা আ’ত্মসাতের উদ্দেশ্যে ভাগিয়ে নিয়ে গেছে বলেও অনেকে মন্তব্য করেন। জামাই আকারুল ইসলাম পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী।

স্ত্রী-স’ন্তানকে ফে’লে রেখে বিধবা ধর্ম শাশুড়িকে নিয়ে পালানোর ঘ’টনায় ইতিমধ্যেই ওই গ্রাম ও আশেপাশের এলাকার সাধারন মানুষের মুখে মুখে সখকখমালোচনা ও মুখরোচক গল্প হয়ে উঠেছে। ব্যক্তি না থাকায় সংসারে সব কাজকর্ম জামাই আকারুলই করতো। যার কারণে তার বাড়িতে রাতে দিনে যাতায়াত ছিল জামাই আকারুলের।

তিনি আরো বলেন, ভাবি শা’রীরিক অ’সুস্থতার কথা বলে তার মায়ের বাড়িতে বেড়াতে যাই। পরে হয়তো আকারুলের সাথে যোগাযোগ করে পালিয়েছে।রাজমিস্ত্রী আকারুলের স্ত্রী জানান, আমার স্বা’মী রাজমিস্ত্রী কাজে বাহিরে যাচ্ছে বলে জানিয়ে বেরিয়েছি।

যাওয়া সময় ঘরে থাকা কিছু নগদ টাকা নিয়ে গেছে। বিধবা আসমার দেবর মি’লন হোসেন জানান, ভাই গত দেড় বছর আগে মালেশিয়ায় কর্মরত অবস্থায় মৃ’ত্যুবরণ করে। সেই থেকে ভাবি দুই মেয়েকে নিয়ে নিজের সংসার নিজেই দেখভাল করছে। আমাদের সাথে সাংসারিক বি’ষয় নিয়ে কোন আলাপ আলোচনা করে না বরং ধর্মজামাইকে নিয়ে তার ওঠাবসা।

নিত্যানন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন জানান, গত ৩মাস আগে ওদের বি’ষয় নিয়ে পরিষদে সালিশ বৈঠক হয়। সেখানে তাদের সম্প’র্ক নিয়ে কথা উঠে। তারা সমাজে সুন্দরভাবে বসবাস করবে এমন মুচলেকায় সালিম বৈঠক মীমাংশা হয়। তবে হুট করে এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করবে কেউ ভাবতে পারেনী। ওদের সুষ্ঠু বিচার হওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেন।

আরও পড়ুন :স্ত্রী’কে খুব সুখী রা’খুন এই ৯টি কৌ’শলে!

বিধবা আসমা আমার সংসার ভাঙার জন্য আমার স্বা’মীকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে পালিয়ে গেছে। এখন আমার স’ন্তানদের নিয়ে সমাজে মুখ দেখাতে পারছি না।ইউপি সদস্য রাশিদুল ইসলাম জানান, আমার গ্রামের এমন ন্যাক্কারজনক ঘ’টনায় আমি নিজেই বিব্রত। আমি লোকমুখে শুনেছি রাজমিস্ত্রী আকারুল বিধবা ধর্মশাশুড়ী আসমাকে নিয়ে পালিয়েছে। তবে এব্যাপারে দু’পরিবারের কেউ আমাকে কিছু জানাইনি।

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply

Translate »