বয়স মাত্র ৪৯, ১৫০ সন্তানের বাবা তিনি! জো | He is only 49, the father of 150 children!

বর্তমানে দেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে খানিকটা রাশ টানতে সচেষ্ট সরকার। জোর কদমে প্রচার হয়েছে “হাম দো হামারে দো ” এই স্লোগানের। যার অর্থ স্বামী স্ত্রী ও দুটি সন্তান নিয়ে সুধী পরিবার,যা দুই  এর বেশি সন্তানের জন্ম দেওয়া রোধের জন্য সচেতনতা মূলক প্রচার। তবে অনেকেই হয়তো দুইয়ের  বেশি সন্তানের বাবা হয়েছেন, কিন্তু ১৫০ সন্তানের বাবা এক ব্যক্তি শুনেছেন! হ্যাঁ ঠিকই দেখছেন মোট দেড়শো সন্তানের বাবা হয়েছেন এক ব্যক্তি।

মহান এই ব্যক্তিকে থামাতে পারেনি করোনার লকডাউনও ,লকডাউনেও তিনি মোট ৬টি সন্তানের বাবা হয়েছেন। অনেকে ভাবছেন এও কি কখনো সম্ভব! আবার আপনাদের অনেকের মাথায় নিশ্চই “ভিকি ডোনার” সিনেমাটি ঘুরছে। ঠিকই ধরেছেন, ইনি একজন স্পার্ম ডোনার। জো নামক ওই ব্যক্তি আদতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা। বর্তমানে তিনি আছেন লন্ডনে।

৪৯ বছরের জো এপর্যন্ত মোট ১৫০ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। ২০২০ সালেই জো মোট ১০ জনের জন্য স্পার্ম ডোনেট করেছেন। যারমধ্যে ৬ জন সন্তান ইতিমধ্যেই ভূমিষ্ঠ হয়েছে। লকডাউনের পূর্বে তিনি আর্জেন্টিনায় গিয়েছিলেন সেখানেই আটকে পড়েন। যার জন্য কিছুটা স্লো হয়ে যেতে হয় জো কে,কিন্তু তাবলে থেমে যাননি তিনি। এখন তিনি লন্ডনে রয়েছেন তার আরো কিছু ক্লায়েন্টের জন্য স্পার্ম ডোনেট করবেন বলে।

জো এর কথা মত “আমি সারা বিশ্বে মোট ১৫০ সন্তানের বাবা। বর্তমানে আমার দেন করা স্পার্মে গর্ভবতী মোট ৫ জন মহিলা। কিছুদিন আগেই জন্মনিয়েছে এক শিশু। করোনার ফলে আমায় কিছু তা স্লো হতে হয়েছিল,তবে থেমে যায়নি। আমার সন্তানদের জন্ম নিতে দেখতে খুব ভালো লাগে। আমার সন্তানদের অনেকেরই আমার চেহারার সাথে অনেক মিল আছে। যেটা আমার খুবই ভালো লাগে।”

 

জো এর থেকে আরো জানা গেছে তিনি শুধু মাত্র স্পার্ম ডোনেশনের মাধ্যমেই সন্তানের বাবা হন না। অনেকক্ষেত্রে যৌন সঙ্গমের মাধমেও বহু মহিলাকে গর্ভবতী করে মাতৃত্বের অনুভূতি দিয়েছেন। তবে তার এই কাজের জন্য তার মোটেও আফসোস নেই। নিজের কাজে তিনি  গর্বিত।

বিশ্বজুড়ে ১৫০ সন্তানের বাবা হয়ে আলোচনায় উঠে এসেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক ব্যক্তি। শুধুমাত্র লকডাউনেই পাঁচসন্তানের ‘পিতা’ হয়েছেন তিনি। নাম তার জো, বয়স মাত্র ৪৯।

 

আমেরিকা, আর্জেন্টিনা, ইতালি, সিঙ্গাপুর, ফিলিপাইনসহ বিভিন্ন দেশে গিয়ে স্পার্ম ডোনেট করেন তিনি। ২০০৮ সালে তিনি এই কাজ শুরু করেন। এতদিন তিনি যে ১৫০ জনকে স্পার্ম দিয়েছেন তাদের মধ্যে অর্ধেক নারীকে দিয়েছেন কৃত্রিমভাবে। বাকিদের সরাসরি স্পার্ম ডোনেট করেছেন তিনি। এদের মধ্যে অনেক নারীই বিবাহিত, কিন্তু তাদের স্বামীরা ‘নিস্ফল’ অর্থাৎ সন্তানের বাবা হতে অক্ষম।

রুপালি পর্দার ভিকি ডোনারের মতোই এটাও এক স্পার্ম ডোনারের গল্প। করোনা বা লকডাউন তাকে আটকাতে পারেনি। এই মহামারীর মাঝেও কাজ চালিয়ে গিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই স্পার্ম ডোনার।

তিনি জানিয়েছেন, লকডাউনেও থেমে থাকেননি তিনি। করোনা তথা লকডাউনের সময় তিনি ছয়জনকে স্পার্ম ডোনেট করেছেন। তাদের মধ্যে তাদের মধ্যে পাঁচজন বর্তমানে গর্ভবতী। আর একজন ইতোমধ্যেই সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। তাকে স্পার্ম দিয়েছিলেন গত বছরের শেষের দিক।

জো জানিয়েছেন, ২০২০ সালে মোট ১০ জন নারীকে স্পার্ম ডোনেট করবেন। তাদের মধ্যে পাঁচজনকে ইতোমধ্যে স্পার্ম দিয়েছেন। তারা বর্তমানে সবাই গর্ভবতী। এই সপ্তাহেই আরও পাঁচজনকে স্পার্ম দেওয়ার জন্য বর্তমানে তিনি লন্ডনে অবস্থান করছেন।

জো লকডাউনের পুরো সময়টাই আর্জেন্টিনায় ছিলেন। সেখানে কয়েকজন নারীকে স্পার্ম দিতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে লকডাউনে আটকে পড়েন তিনি।

জো বলেন, “সারা বিশ্বে ১৫০ শিশুর বাবা আমি। চলতি বছরে আমার ডোনেট করা স্পার্মে ১০ জন নারী গর্ভবতী হয়েছেন। একটি শিশু দিন কয়েক আগে জন্মগ্রহণ করেছে। করোনার জন্য আমি একটু স্লো হয়েছিলাম বটে! তবে থেমে যাইনি।”

তিনি আরও বলেন, “সন্তানদের জন্মাতে দেখলে আমার খুব ভাল লাগে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখি আমার চেহারার সঙ্গে ওদের মিল রয়েছে।”

জো জানিয়েছেন, “এ কাজটি ঝুঁকিপূর্ণ। নানা ধরনের যৌনবাহিত রোগ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান। এছাড়াও যদি কোনও নারী স্পার্ম নেওয়ার আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে বলেন, তবে তিনি তা করান।”

“হাম দো হামারে দো” কে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ১৫০ সন্তানের বাবা এক ব্যক্তি !

সূত্র: মিরর

Leave a Reply Cancel reply