ভাই-বোনের বিবাহের বৈধতা দিচ্ছে জার্মানি !

বদলে যাওয়ার ইতিহাস আছে। কিন্তু এমন এক ইতিহাস হতে যাচ্ছে যা কিনা নিজের বিবেককে দারুণভাবে নাড়া দেয়। যদি একই গর্ভের সহোদর সন্তান যৌনতায় বৈধতা পায় তাহলে অবাক করারই কথা।

সম্প্রতি জার্মানির ‘এথিক্স কাউন্সিল’ এমনই এক অভিনব বিষয় সামনে নিয়ে এসেছে। জার্মানিতে অদূর ভবিষ্যতে বৈধ হচ্ছে ভাই-বোনের বিয়ে!

জার্মানিতে সমাজ অস্বীকৃত যৌন সম্পর্কের বিষয়টি অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের অন্তর্ভুক্ত। ইউরোপের বেশ কিছু দেশ- ফ্রান্স, স্পেইন, পর্তুগাল, নেদারল্যান্ড লুক্সেমবার্গ কিন্তু এটিকে বৈধতা দিয়েছে। আর সে কারণেই জার্মানিতে বিষয়টি নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। এথিক্স কাউন্সিলের ভাষ্য, দুজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করবে কি-না তা তাদের ব্যক্তিগত বিষয়। সমাজ এটিকে নিষেধাজ্ঞার জায়গায় নিয়ে যেতে পারে না। এর জন্য রীতিমতো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের আওতায় শাস্তিবিধান করতে পারে না।

জার্মান প্রশাসন এথিক্স কাউন্সিলের যুক্তিতে যদি গুরুত্ব ‍দেয়, তাহলে ফ্রান্স, স্পেন, পর্তুগালের মতো জার্মানিতেও অচিরেই ভাই-বোনের যৌন সম্পর্ক বৈধ করতে পারে। মনে করা যেতে পারে প্রাচীন মিসরের রাজপরিবাগুলোর কথা। যেখানে কথিত রক্তের বিশুদ্ধতা রক্ষার জন্য সহোদর ভাই-বোনের মধ্যে জাঁকজমকভাবে বিয়ে দেয়া হতো। এথিক্স কাউন্সিল ‘রক্তের বিশুদ্ধতা রক্ষার’ বিষয়টিকে উড়িয়ে দিয়েছে। কিন্তু সমর্থন করেছে মানুষের সিদ্ধান্ত নেয়ার স্বাধীনতাকে।

নতুন এ বিষয়টি সামনে চলে আসে এক অজাচারী জুটিকে ঘিরে। প্যাট্রিক ও সুসান, গণমাধ্যমের কল্যাণে জার্মানিতে সুপরিচিত। তারা দুজন সহোদর ভাই-বোন এবং শারীরিক আকর্ষণের বশবর্তী হয়ে মিলিত হন। বিষয়টি জানাজানির পর ততদিনে তারা চার সন্তানের বাবা-মা। জার্মান সরকার দুজনকে পৃথক করে দেয় এবং অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের আওতায় প্যাট্রিকের চার বছরের জেল হয়। ঔরসজাত চার সন্তানের মধ্যে দুজনই প্রতিবন্ধী। তাদের নিরাময়কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

দুজন প্রতিবন্ধী সন্তানই দেখিয়ে দিচ্ছে, কেন অজাচার অবৈধ। আর এমনটা মনে করছে এথিক্স কাউন্সিল। ঠিক এ কারণেই বিষয়টি ধীরে ধীরে সামাজিকভাবে অপরাধ হিসেবে দাঁড়িয়েছে যা একটি ভুল সিদ্ধান্ত। তাদের মিলনে জন্ম নেয়া প্রতিবন্ধী সন্তানকে যখন অবাঞ্ছিত করা হচ্ছে না, তখন ভাই-বোনের যৌন সম্পর্ক অবৈধ, বেআইনি, তাদের সন্তান অবাঞ্চিত হওয়াটা অমানবিক।

এথিক্স কাউন্সিল বিষয়টি মাথায় রেখে রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্তকে প্রভাবিত করে থাকে। কাউন্সিল মতামতও প্রদান করেছে। কাউন্সিল ভাই-বোনের সম্পর্ককে যখন অবৈধ করাটা অমানবিক মনে করছে তখন অদূর ভবিষ্যতে জার্মানিতে বিষয়টি বৈধ হওয়া কোনো বিষয় নয়, শুধু সময়ের ব্যাপার।

 

Read More: ভাইয়ের ধর্ষণে মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছোট বোন!

মজার তথ্য ✓ হাসির জোকস ✓ বাংলা হট জোকস ✓ বুদ্ধির ধাধার বই সমগ্র ডাউনলোড PDF

 

বিখ্যাত লেখক ও মণীষীদের নির্বাচিত ৩০০০ টি [বাংলাঃ ১২০০ English 1800 ] বানী বা উক্তি সমূহের বাংলা বই বা ই-বুক বা PDF [ কম্পিউটার + মোবাইল ভার্সন ]

বাণী চিরন্তণী all Quotes 1000 TOP POPULAR DOWNLOADS.pdf

পড়ুন

আরও পড়ুন: মামেয়েকে ধর্ষণের দায়ে জনের যাবজ্জীবন

বন্ধুরা, এই পোস্টে আমরা আপনাকে  পোস্টটি সম্পর্কে বলেছি। আশা করি আপনি এই পোস্টটি পছন্দ করবেন।

আপনার এই পোস্টটি কেমন লেগেছে, মন্তব্য করে আমাদের জানান এবং এই পোস্টে কোনও ত্রুটি থাকলেও আমরা অবশ্যই এটি সংশোধন করে আপডেট করব।

 

Biography, Famous Quotes ও উক্তি সমূহ লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করো। এই ধরনের লেখার নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজটি ফলো ।

 

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Subscribe to the Daily News Times bd.com YouTube channel and follow the Facebook page.

 

উক্ত আর্টিকেলের উক্তি ও বাণীসমূগ বিভিন্ন ব্লগ, উইকিপিডিয়া এবং .. রচিত গ্রন্থ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: দরজার বাইরে মাকে রেখে মেয়েকে ধর্ষণ করেছিলেন ম্যারাডোনা, দাবি বান্ধবীর

আরও পড়ুন: কালিদাস পণ্ডিতের ধাঁধাঁ ১। পর্ব moral stories Kalidas Pondit In Bangla কালিদাস

Read More: মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার যাবজ্জীবন

আরো জানুন >> ছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় শিক্ষকের যাবজ্জীবন

এখনই কিনুন >> সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের দায়ে বাবার যাবজ্জীবন

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন >> মেয়েকে ধর্ষণের মামলায় পিতার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

জোর করে মাটিতে ফেলে মাকে ধর্ষণ, মোবাইল দিয়ে ছবি তুলল মেয়ে

মেয়ের সামনে মাকে ধর্ষণ, ডিবির এসআই কারাগারে | 

সৎ মাকে ধর্ষণের চেষ্টা, ছেলে আটক

মাতাল অবস্থায় মাকে ধর্ষণ, ছেলে আটক

মায়ের অবগতিতেই বোনকে ৯ বছর ধরে ধর্ষণ!

দ্বিতীয়বারের জন্য মাকে ধর্ষণ করতে গিয়ে গ্রেফতার ছেলে

 

 

তথ্যসূত্র: Wikipedia, Online

Sourc of : Wikipedia, Online Internet

 

 ছবিঃ ইন্টারনেট

দৃষ্টি আকর্ষণ এই সাইটে সাধারণত আমরা নিজস্ব কোনো খবর তৈরী করি না.. আমরা বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবরগুলো সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি.. তাই কোনো খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ সবাইকে।

 

Leave a Reply

Translate »