ভারতে সমাজবিধ্বংসী স্বামী-স্ত্রী বদল চক্রের সন্ধান, গ্রেফতার ৭

পশ্চিমা দেশগুলোতে স্বামী-স্ত্রী কিংবা নিজের সঙ্গীকে বদল করার জন্য কিছু ক্লাব রয়েছে। যেগুলো ‘সুইঙ্গিং ক্লাব’ নামে পরিচিত। তাদের ভাষায়- যৌন জীবনের একঘেয়েমি কাটাতে সেখানে যান তারা।

এবার সমাজবিধ্বংসী এই স্বামী-স্ত্রী বদল চক্রের সন্ধান পাওয়া গেল প্রতিবেশী দেশ ভারতেও। দেশটির পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে।

এরই মধ্যে এই চক্রের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সাতজনকে গ্রেফতার করেছে ভারতের কেরালা রাজ্য পুলিশ। রাজ্যজুড়ে এই চক্র ছড়িয়ে পড়েছে বলে পুলিশের আশঙ্কা।

মা হলেন ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী, বাবা হতে চাননি আবু

মূলত সমাজের ধনী এবং অভিজাত শ্রেণির মধ্যে এই প্রবণতা ছড়িয়ে পড়েছে বলে ধারণা পুলিশের। প্রথমিক তদন্তে অন্তত এক হাজার নারী-পুরুষ এই চক্রে জড়িত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কেরালার কারুকাচল থানায় এক নারী তার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালে পুরো বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। ওই নারীর অভিযোগ, তার স্বামী তাকে জোর করে অন্য পুরুষদের সঙ্গে বিছানায় যেতে বাধ্য করতে চাইছিলেন।

৩৫ টি অদ্ভুত ওয়েবসাইট যা দেখলে আপনি অবাক হবেন।

এর আগে কায়ামকুলাম এলাকা থেকেও এই ধরনের অভিযোগ এসেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। পুলিশ জানতে পেরেছে, নেট মাধ্যম ব্যবহার করে একদল লোক প্রথমে অ্যাপের মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপে ঢুকে পড়ে নারী-পুরুষদের সঙ্গে বন্ধু পাতিয়ে অনেককে এই কাজে প্ররোচিত করছে। যৌনজীবনের একঘেয়েমি কাটাতে এই ধরনের প্রস্তাব একটা বড় অংশের মানুষের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে বলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বলে আশঙ্কা পুলিশের।

বিয়ের পর গৌরীর নাম বদলে করা হয় আয়েশা, শাহরুখ বাধ্য করে বোরখা ও নামাজ পরতে

চেঙ্গাচেরির ডেপুটি পুলিশ সুপার আর শ্রীকুমার জানান, অভিযুক্তরা অধিকাংশই আলাপুঝা, কোট্টায়াম, এর্নাকুলামের মতো জেলার বাসিন্দা। অভিযোগকারী নারীর স্বামী ছাড়া আরও ছয়জনকে পুলিশ গ্রফতার করেছে। তবে এর সঙ্গে যুক্তদের সংখ্যা আরও অনেক বেশি বলে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে। সংখ্যাটা এক হাজারের ওপর বলে প্রাথমিক ধারণা করছে পুলিশ।

সূত্র: এনডিটিভিইন্ডিয়া হেরাল্ডমিরর নাউ নিউজঅনমানোরমা নিউজমাথরুভূমি

Leave a Reply

Translate »