ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব কামরুন নাহার মুকুল (প্রষনে দায়িত্ব প্রাপ্ত) ও অভিভাবক ফোরাম এর সদস্য জনাব মীর শাহাবুদ্দিন টিপু

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব কামরুন নাহার মুকুল (প্রষনে দায়িত্ব প্রাপ্ত) ও অভিভাবক ফোরাম এর সদস্য জনাব মীর শাহাবুদ্দিন টিপুসাহেবের ফোনালাপ কয়েক দিন যাবৎ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সমাজের বিভিন্ন শ্রেনি পেশার মানুষ এ নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করছেন।

একজন শিক্ষক সর্বোপরি একজন অধ্যক্ষের এরূপ অশালীন রুচিহীন বক্তব্য শুনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানানোটাই স্বাভাবিক। বিরূপ প্রতিক্রিয়া অনেকই সংশ্লিষ্ট অধ্যক্ষকে করেছেন। আবার অনেকই তার নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে করেছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মন্তব্য করতেও পিছ পা হননি।

কেউ কেউ এ বিষয় নিয়ে সরকারের কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করেছেন।সবশেষ তিনি যেহেতু শিক্ষক সমাজের বিভিন্ন পর্যায় থেকে শিক্ষকদের দিকেও অঙ্গুলি নির্দেশ করেছেন।প্রশ্ন আসছে এই অবস্থা যদি শিক্ষকের হয় তাহলে শিক্ষার্থী এদের কাছে কী শিক্ষা পাবে? কথা সত্য।এটা অভিভাবকদের চিন্তার কারনও বটে। প্রথমেই আমরা বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদ থেকে শিক্ষক সমাজের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে বলতে চাই জনৈক অধ্যক্ষের অশালীন বক্তব্য ও কর্মকাণ্ডের দায় আমরা নিব না।আমরা তার বক্তব্যকে কোন শিক্ষকের কেন? একজন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষ বক্তব্য মনে করি না। আমরা তার বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব কামরুন নাহার মুকুল

তবে একটি কথা আমাদের সবাইকে স্মরণ রাখতে হবে কোন বিষয়ে কারো বিচার করতে হলে তাকে আত্মপক্ষ সমর্থনে সুযোগ দিতে হবে। ফোনালাপ সম্পর্কে ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জনাব কামরুন নাহার মুকুল বলেছেন, এটা তার বক্তব্য এডিট করে প্রকাশ করা হয়েছে। যদি এডিটিং বক্তব্য হয় তাহলেও তদন্ত সাপেক্ষে সত্য মিথ্যা যাচাই করা উচিত। আর এটা যদি তার বক্তব্য হয় তাও প্রমানের জন্য তদন্ত প্রয়োজন। তদন্ত সাপেক্ষ সবাইকে বিচারের আওতায় আনা উচিৎ। ইতিমধ্যে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত চলছে – তদন্তের শেষে আমরা সত্য জানতে পারব।

Read Mor: পাকিস্তানে একটি ছাগলকে যৌন নিপীড়ণ করে হত্যা

তবে তার পূর্বে আমি কিছু বিষয় বিনিময়ের সাথে নিবেদন করতে চাই –

০১। অধ্যক্ষ মহোদয়ের কথা মতো যদি তার বক্তব্য, তাকে ফোঁসানোর উদ্যেশ্য নিয়ে আংশিক বা এডিটিং করা হয় তাহলে এ কাজের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।
০২.অধ্যক্ষ মহোদয়ের ফোনালাপ যদি সত্যি হয় তবে তাকে অবশ্যই বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। কেউই আইনের উর্ধ্বে নয়। শিক্ষক হিসেবে আমাদের আর বেশি সচেতন হওয়া উচিত।
০৩. জনাব কারুমন না্হার মুকুল মনের অজান্তে বা দাম্ভিক ভাবে যে কথাগুলো বলেছ তা কোন ভাবে গ্রহণযোগ্য নয়।
০৪ তিনি তার বক্তব্যে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ, যুব লীগ, ছাত্র লীগ, মহিলা লীগ সবাইকে জড়িয়েছেন।
০৫. তিনি তার ক্ষমতা জাহির করতে গিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা সচিব মহোদয়কে জড়িয়ে কথা বলতে কুন্ঠাবোধ করে নাই।
০৬. তিনি তার কথা নিজের শিক্ষক পরিচয় বাদ দিয়ে নিজে সন্ত্রাসী হিসাবে প্রচার করেছেন। তাহলে তো ওনার শিক্ষক পরিচয় বাদ দিলে আমরা শিক্ষক সমাজ অপবাদ থেকে বেঁচে যাই।

যাদেরকে জড়িয়ে অধ্যক্ষ মহোদয় কথা বলেছেন প্রত্যেকর উচিত হবে তার বক্তব্যের প্রতিবাদ করে দায় মুক্তি নেয়া। অভিভাবক ফোরাম যে কাজটি করেছে তাও সমর্থনযোগ্য নয়।শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালানোর জন্য ম্যানেজিং কমিটির সংশ্লিষ্টতার কথা জানি কিন্তু অভিভাবক ফোরাম কী কাজে লাগে আমার জানানেই?হাঁ, শিক্ষক অভিভাবক সমিতির (P T A) বিষয় জানি। শুধুমাত্র ভিকারুননিসা নূন স্কুল এবং আইডিয়াল স্কুলে এই অভিভাবক ফোরামের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় কী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব তাদের দিয়েছে? এ জাতীয় কোন তথ্য আমাদের জানা নেই। প্রতিষ্ঠান পরিচালনা জন্য ম্যানেজিং কমিটি / গর্ভনিং বডি আছে।শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম সঠিক ভাবে চলছে কিনা তা দেখার জন্য সরকার নির্ধারিত থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা শিক্ষা অফিসার, আঞ্চলিক উপপরিচালক, পরিচালক, মহাপরিচালক, বিদ্যালয় পরিদর্শক, সংশ্লিষ্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং অনিয়ম ও দূর্নীতি দেখার জন্য ডি, আই,এ রয়েছে।
তারপরে এই ফোরামের কাজ কী? ফোনালাপ সত্য মিথ্যা বিষয় বলতে চাই না তবে অধ্যক্ষ মহোদয়কে যে ফোনালাপে খারাপ কিছু বলার জন্য পরিবেশ তৈরি করে দিয়েছেন তাতে কোন সন্দেহ নেই। তাদের উদ্যেশ্য মহৎ এটা বলা যায় না।
দুলাল চন্দ্র চৌধুরী
দুলাল চন্দ্র চৌধুরী

 

 

দুলাল চন্দ্র চৌধুরী

সাংগঠনিক সম্পাদক

বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান পরিষদ।

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Leave a Reply

Translate »