ভয় দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের ভিডিও পাঠানো হলো স্বামীকে, অতঃপর…

কুমিল্লার হোমনায় আপত্তিকর ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ ও পরে সেই ভিডিও পাঠানো হয় স্বামীকে। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত ২২ জানুয়ারি এ ঘটনার পর রোববার (৫ জুন) রাতে ওই তরুণী থানায় অভিযোগ করেন। পরে বাগসিতারামপুর গ্রামের রোকন উদ্দিন প্রধানের ( রুক্কু মেম্বার) ছেলে বশির প্রধান (৩৫) ও একই গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে আল আমিনকে (৩৮) গ্রেফতার করে হোমনা থানা পুলিশ। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বশির প্রধান মেয়েটির সম্পর্কে চাচা হয়। তার বাবা বিদেশে থাকায় মাঝে মধ্যে তাদের পরিবারের দেখাশুনা করত।

গত ১৫ জানুয়ারি মেয়েটিকে একা পেয়ে তার আপত্তিকর ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে। পরে ব্ল্যাকমেইল করে ২২ জানুয়ারি তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। গত ২ মার্চ সামাজিকভাবে মেয়েটির বিয়ে হয়ে গেলে বশিরের ইমো নম্বর থেকে তার আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও দেখিয়ে কুপ্রস্তাব দেয়।

‘আমার তিনটা মাইয়্যারই জীবনডা শ্যাষ কইরা দিছে’

এতে সে রাজি না হওয়ায় আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও তার স্বামীর কাছে পাঠায়। পরে তার স্বামী তাকে তালাক দেন। ঘটনা জানাজানি হলে বশির প্রধান, তার ভাই নাছির প্রধান ও আল আমিন মেয়ের পরিবারকে ভয়ভীতি দেখায় এবং থানা পুলিশকে জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে রোববার মেয়েটি থানায় উপস্থিত হয়ে অভিযোগ দেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে বশির প্রধান ও আল আমিনকে গ্রেফতার করে হোমনা থানা পুলিশ। এ বিষয়ে ওসি মো. সাইফুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেয়েছি। ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত শেষে মামলা করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হবে।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!

Leave a Reply Cancel reply