যে কারণে পুরুষদের বিবস্ত্র করে শরীরে ট্যাটু খুঁজছে রুশ সেনারা

যুদ্ধের শুরুতেই ইউক্রেনের খেরসন শহর দখল করে রাশিয়ার সেনারা। বর্তমানে খেরসনকে রাশিয়ার সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করতে সব প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা।

আর এমন সময় খেরসন আঞ্চলিক অফিসের ডেপুটি প্রধান ইউরি সোবোলেভস্কি জানালেন, সেখানে থাকা স্থানীয়দের বেরও হতে দিচ্ছে না রুশ সেনারা। যারা বের হওয়ার চেষ্টা করছেন তাদের আটকে দেওয়া হচ্ছে।

শুক্রবার ইউক্রেনের জাতীয় টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইউরি সোবোলেভস্কি জানিয়েছেন, রাশিয়ার সেনারা চেক পোস্ট বসিয়েছে। সেই চেকপোস্টগুলোতে ইউক্রেনের পুরুষদের জোর করে বিবস্ত্র করে ট্যাটু খুঁজছে তারা।

 

তিনি জানিয়েছেন, নিয়মিত জাতীয়তাবাদী ও নতুন-নাৎসীবাদী ট্যাটু খুঁজতে এমন নির্যাতন চালানো হচ্ছে।

 

রাশিয়ার দাবি ইউক্রেনে জাতীয়তাবাদী ও নতুন-নাৎসীবাদী আছেন যারা রুশ ভাষাভাষীদের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে। এখন তাদের ধরতে চাচ্ছে রাশিয়া।

 

ইউরি সোবোলেভস্কি আরও জানিয়েছেন, খেরসনের কিছু অঞ্চলে পরীক্ষামূলক রুবলের ব্যবহার প্রচলন করার চেষ্টা করছে রাশিয়া।

পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়ার পর প্রেমিকাকে গলা টিপে হত্যা

তিনি আরও জানিয়েছেন, বর্তমানে খেরসনে মোবাইল ও ইন্টারনেট সংযোগ পুনর্স্থাপন করা হয়েছে। ফলে খেরসনের বাসিন্দারা ইউক্রেনের অন্য প্রান্তে থাকা তাদের আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন।

 

সূত্র: সিএনএন

Leave a Reply

Translate »