যে ১৫টি কারণে যৌন আকাঙ্ক্ষা কমে যায় | যে কারণে কমে পুরুষের যৌন ইচ্ছা

প্রিয়জনকে নিয়ে অন্তরঙ্গ সময় কাটানোর ইচ্ছে যখন তখন হতে পারে। কিন্তু অনেক কারণেই যৌন আকাঙ্ক্ষা মরে যেতে পারে। অনেক সময়ই অনেকে ভেবে পান না, কি কারণে তার কাছে সেক্স আর ভালো লাগে না। এখানে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, কি কারণে যৌনতার প্রতি আগ্রহ চলে যেতে পারে।

পুরুষের যৌনশক্তি কমার পেছনে প্রভাব ফেলতে পারে খাদ্যাভাস। এটি আপনার লিবিডোতে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। বিশেষ করে যখন বয়স বাড়তে থাকে তখন এই ক্ষতিকর প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই যেসব খাবার যৌনশক্তি কমিয়ে দেয় তা তালিকা থেকে বাদ দেওয়াই শ্রেয়।

চলুন দেখা যাক, যেসব কারণে পুরুষের যৌনক্ষমতা কমে যাচ্ছে

ধূমপান ও মদ্যপান

দিনে দিনে ধূমপান ও আভিজাত্যে মদ্যপান যেন স্বাভাবিক নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকে তো এর সঙ্গে সঙ্গে আরও মারাত্মক ক্ষতিকারক নেশায় আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন। এক গবেষণায় দেখা গেছে, যে সকল পুরুষের ইডি বা লিঙ্গের উত্থানজনিত সমস্যা আছে তাদের বেশির ভাগই ধূমপান বা মদ্যপান করে থাকেন। দুশ্চিন্তা পুরুষের দুশ্চিন্তা অনেক বেশি। স্ত্রীর নানা রকম আঘাত, ধীরে ধীরে পুরুষের শরীরের স্বাভাবিক কার্যক্রম নষ্ট করে দিতে থাকে। যার থেকে বাদ যায় না যৌনক্ষমতাও। ওজন নিয়ন্ত্রণ ওজন বেশি থাকলে যৌন সঙ্গমের ইচ্ছাও কমে যেতে থাকে। আবার ওজন কম থাকাও ভালো নয়! ওজন স্বাভাবিকের থাকলে যৌনশক্তি ঠিক থাকে। ব্যায়াম না করা এক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত ব্যায়াম করেন তাদের যৌনক্ষমতা অন্যান্যদের তুলনায় বেশি হয়ে থাকে। নিয়মিত ব্যায়াম করলে শরীরের রক্ত সঞ্চালনের পরিমাণও বৃদ্ধি পায়, যা আপনার যৌনশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। নেশা যারা নেশায় আসক্ত, তাদের বেশিরভাগই ধীরে ধীরে যৌন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন। এছাড়াও কিছু ঔষধ আছে (ব্যথানাশক, গর্ভরোধী) যার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আপনার যৌনক্ষমতা কমিয়ে আনে।

বদহজম বদহজমের কারণেও যৌনশক্তি কমে যায়। কেননা শরীরে হজম না হওয়ার কারণে রক্ত তৈরী হয় না। দুর্বল যকৃত যকৃত দুর্বল হওয়ার কারণে যৌনশক্তি কমে যায়। এর কারণ হলো, কলিজা হলো মানুষের শরীরের রক্ত প্রস্ততকারীর অন্যতম একটি উপাদান। বিশেষ করে যকৃতের কাজই হলো রক্ত তৈরী করা। যকৃত দুর্বলের লক্ষণ হলো—মুখের স্বাদ নষ্ট হয়ে যাওয়া।

শরীরের রঙ হলদে হলদে হয়ে যাওয়া। সহবাসের সময় উত্তেজনা কমে যাওয়া। মস্তিঙ্কের দুর্বলতা আবার অনেকের মস্তিঙ্কের দুর্বলতার কারণেও যৌনশক্তি কমে যায়। যখন যৌনাঙ্গের শিরা দুর্বল হয়ে যায়, সব সময় রোগীর মাথায় ব্যাথা অনুভব করে কিংবা সহবাসের পর পরই অস্থিরতা অনুভব করে এবং চোখে অন্ধকার দেখে। সহবাসের পরই অধিক ক্লান্তি নেমে আসে।

১. যৌনজীবনকে বিপর্যস্ত করে দিতে পারে স্ট্রেস। প্রতিদিনের স্ট্রেসপূর্ণ কাজ এবং মানসিকতা মন থেকে যৌন আকাঙ্ক্ষাকে তাড়িয়ে দিতে পারে।

২. ঘুমের অভাবে সেক্সের প্রতি আগ্রহ হারাতে পারেন। ঠিকমতো ঘুম না হলে এরপর যৌনতা বিরক্তিকর ঠেকতে পারে। ৩. সঙ্গী বা সঙ্গিনীর সঙ্গে কোনো বিষয়ে একচোট তর্ক-বিতর্কের পর সেক্স আর উপভোগ্য নাও হতে পারে। ৪. নারীদের পিরিয়ড-সংক্রান্ত নানা জটিলতা হয়। এর একট নির্দিষ্ট চক্র থাকে। এতে ঝামেলা দেখা দিলে মেয়েদের যৌন আকাঙ্ক্ষা চলে যেতে পারে।

৫. জন্মনিয়ন্ত্রণে পিল খান নারীরা। এই ওষুধ এক ধরনের বিষণ্নতা এনে দেয়। এতে অনেকের অ্যালার্জিও দেখা দেয়। এসব কারণে সেক্স থেকে আগ্রহ সরে যেতে পারে। ৬. এটা মনের কোনো বিচিত্র খেয়াল হতে পারে। হঠাৎ করেই মনে যৌনতার প্রতি বিতৃষ্ণা চলে আসতে পারে। ৭. উপভোগ্য সময়ে কোনো কাজের চিন্তা বা টেলিফোন বা পরিবারের অন্য কোনো সদস্যের বিরক্তিতে ইচ্ছাটা উবে যেতে পারে।

৮. দেহ-মনের সঙ্গে খাবারের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। ভুল খাবার খেলে মন থেকে সেক্সের ইচ্ছা চলে যেতে পারে। ৯. প্রযুক্তি নিয়ে দারুণ ব্যস্ততাও যৌনতার প্রতি অনাগ্রহ এনে দিতে পারে। তাই সময়মতো প্রযুক্তিকে ত্যাগ করুন।

১০. শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা আপনাকে যৌনতা থেকে দূরে ঠেলে দিতে পারে। হাঁপানি সমস্যা থাকলে খুব দ্রুত ক্লান্ত হয়ে পড়বেন। এতে যৌনতার প্রতি আগ্রহ থাকবে না। ১১. ধূমপান হৃদযন্ত্র এবং ফুসফুরে সমস্যা করে। সিগারেটের নিকোটিন যৌন উত্তেজনাকে প্রশমিত করে। তাই এই বদভ্যাস যৌনতার শত্রু।

১২. টেলিভিশন এবং সিনেমায় নিয়ে খুব বেশি সময় কাটানো যৌনজীবনের কাল হয়ে উঠতে পারে। ১৩. ব্যায়াম দেহের জন্যে উপকারী। কিন্তু অতিরিক্ত ব্যায়াম দেহকে ক্লান্ত করে দেবে। তখন সেক্স করতে অবশ্যই ভালো লাগবে না।

১৪. অ্যালকোহলও সেক্সবিরোধী। অনেকে মনে করেন, এটি যৌন আকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি করে। কিন্তু আসলে অ্যালকোহল আপনার যৌন উত্তেজনাকে নিষ্ক্রিয় করে দেবে।

১৫. খুব বেশি পর্ন ছবি আপনার রুচিবোধকে ধ্বংস করে দিতে পারে। তখন স্বাভাবিক যৌন আচরণ থেকে ভালোলাগা চলে যাবে।

সূত্র : আইডিভা

Leave a Reply

Translate »