শাস্ত্রে ৩২ রকমের গণপতির উল্লেখ পাওয়া যায়। শাস্ত্রে ৩২ রকমের গণপতির উল্লেখ পাওয়া যায়। আসুন জানা যাক শ্রীগণেশের এই ৩২ রূপ স

আগামীকাল ২৪ ভাদ্র ( ইং ১০ সেপ্টেম্বর ) শুক্রবার শ্রীশ্রী গণেশচতুর্থী তথা বিঘ্নবিনাশক শ্রীগণেশের আবির্ভাব তিথি। শাস্ত্রে ৩২ রকমের গণপতির উল্লেখ পাওয়া যায়। আসুন জানা যাক শ্রীগণেশের এই ৩২ রূপ সম্বন্ধে
১) বালা গনপতিঃ- ইঁনি শাখা সহিত ফুল, আম্র, আখ ও মোদক ধারন করে সুসজ্জিত অবস্থায় বিরাজ করেন ।
২) তরুণ গণপতিঃ- ইঁনি পেয়ারা, আম্র, নিজের দন্তের অগ্রভাগ, ভূট্টার শিষ, আখের গুড়, শক্তি, কুঠার ধারন করে সুসজ্জিত অবস্থায় থাকেন। ইক্ষু গুড় শ্রীগণেশের খুব প্রিয়।
৩) ভক্তি গনপতিঃ- ইঁনি চন্দ্রের ন্যায় সৌম্য ও উজ্জ্বল। ভক্তদের কৃপা করেন। নারকেল, আম্র, কলা , গুড় মিষ্ট দ্রব্য ধারন করে সুসজ্জিত থাকেন ।
৪) বীর গনপতিঃ- ইঁনি যুদ্ধে জয় প্রদান করেন। ইনি পতাকা, তির ধনুক, শক্তি, চক্র, গদা, লাঙল, সর্প, কুঠার, মুষল আদি অস্ত্র ধারন করে সুসজ্জিত থাকেন ।
৫) শক্তি গণপতিঃ- ইঁনি চতুর্ভুজা ও লাল। ক্রোড়ে দেবী থাকেন। চার হাতে শক্তি, অভয়, কুঠার ধারণ করে থাকেন ।
৬) দ্বিজ গণপতিঃ- ইঁনি চার মস্তক বিশিষ্ট। হস্তে কমণ্ডলু, লেখনী পৃষ্ঠা, লেখনি কালি ও দণ্ড ধারণ করে থাকেন। ইনি শ্বেত বর্ণের ।
৭) সিদ্ধি গণপতিঃ- ইঁনি মালা, ইক্ষু, কুঠার ও আম্র ফল নিয়ে সজ্জিত থাকেন। ইঁনি সোনালী বর্ণ ।
৮) উচ্ছিষ্ট গণপতিঃ- ইঁনি ছয় হস্ত ধারন করেন। ক্রোড়ে দেবী থাকেন। ইঁনি নীল বর্ণের। হাতে ঝুড়ি , ডালিম, বীনা, শিষ, মালা ও পদ্ম ধারন করে সুসজ্জিত থাকেন ।
৯) বিঘ্ন গণপতিঃ- সোনালী রং এর আটবাহু ধারিনী ইঁনি। হস্তে চক্র, শর, কুঠার, পাত্র, শঙ্খ, ইক্ষু, শিষ ও দন্ত ধারন করেন ।
১০) ক্ষিপ্র গণপতিঃ- লাল রঙের এই গণপতি পানপাত্র, বৃক্ষ রস, মূল্যবান প্রস্তর ও হস্তীদণ্ড ধারন করে থাকেন ।
১১) হেরম্ব গণপতিঃ- ইঁনি পঞ্চমুখী। ইনি দশভুজা।
১২) লক্ষ্মী গণপতিঃ- এঁনার ক্রোড়ে রিদ্ধি ও সিদ্ধিদেবী থাকেন। বাকী হাতে বৃক্ষচ্যুত লতা, ডালিম, তরবারি , দন্ত , পাত্র, বস্ত্র ও অভয় ধারন করা থাকে।
১৩) মহা গণপতিঃ- লাল রঙের ইঁনি। সাথে শক্তিও থাকেন। পাত্র, ডালিম, আখের ধনুক, চক্র, শঙ্খ, শর, লতা, কুঠার, অলঙ্কার ও দন্ত থাকে।
১৪) বিজয়া গণপতিঃ- ইঁনি চতুর্ভুজ। পাত্র, অঙ্কুশ , আম ও আতা ফল ফল ধারন করে থাকেন। এঁনার গতি মন্থর ।
১৫) নৃত্য গণপতিঃ- ইঁনি সুন্দর বৃক্ষের তলে নৃত্যরত স্বর্ণ বর্ণের চতুর্ভুজ রূপ। হস্তে পাত্র, অঙ্কুশ, কুঠার ও শক্তি ধারন করে থাকেন । এঁনার ছবি গৃহে রাখা শুভ ও মঙ্গলজনক। বিশেষ করে দোকানে।
১৬) ঊর্ধ্ব গণপতিঃ- এঁনার ক্রোড়ে শক্তি থাকে। স্বর্ণ বর্ণের ইনি। অষ্টভুজা ইনি। সাথে পাত্র, লিলি ফুল, তির, পদ্ম, ইক্ষু ধনুক, লেখনী, লতা ও অপর হাতে দেবীকে ধরে আছেন।
১৭) একাক্ষরা গণপতিঃ- ইঁনি চতুর্ভুজা। রঙ লাল। দন্ত, পাত্র, পিষ্টক ও মোদক নিয়ে সুসজ্জিত থাকেন ।
১৮) বরা গণপতিঃ- লাল রঙের ইঁনি। বাম কোলে শক্তি বিরাজ করেন। শক্তি, চর্ম, দন্ত ধারণ করে সুসজ্জিত থাকেন ।
১৯) ত্রিঅক্ষরা গণপতিঃ- এঁনার চার হস্তে পানপাত্র, দন্ত , আতা ও আম্র ধারণ করা থাকে ।
২০) ক্ষিপ্রপ্রসাদ গণপতিঃ- ইঁনি পাত্র, অঙ্কুশ, গুড়, কাটা, কলা গাছ, বৃক্ষের রস নিয়ে ৬ হাত ধারন করেন। অপর এক হস্তে কিছুই থাকে না।
২১) হরিদ্রা গণপতিঃ- ইঁনি সোনালী হলুদ। চার হস্তে পাত্র, অঙ্কুশ, শুণ্ড ও পিষ্টক- মোদক ধারন করে থাকেন ।
২২) একদন্ত গণপতিঃ- ইঁনি নীল বর্ণ। বস্ত্র, ভূমি, শিশু শ্বাপদ ও লাড্ডু হাতে নিয়ে সুসজ্জিত থাকেন ।
২৩) সৃষ্টি গনপতিঃ- ইঁনি লাল রঙের। মূষিকের ওপরে থাকেন। পাত্র, দন্ত, আতা ও আম নিয়ে সুসজ্জিত থাকেন ।
২৪) উদণ্ড গণপতিঃ- ইঁনি বাম কোলে শক্তি রাখেন। হস্তে শক্তি, খেঁজুর, দন্ত, বস্ত্র, গয়নার পাত্র , মঙ্গল ঘট, আখ, গদা, পদ্ম, জবা , কমণ্ডলু, ডালিম নিয়ে থাকেন। ইঁনি দ্বাদশ ভুজা।
২৫) ঋনমোচনা গণপতিঃ- ইঁনি প্রতিবন্ধকতা দূর করেন। চার হাতে ইক্ষু, পয়সার পাত্র, পাত্র ও দন্ত ধারন করে থাকেন। ইঁনি সাদা রঙের ।
২৬) ধুন্ধি গণপতিঃ- চার হাতে জপমালা, কুঠার, পাত্র ও আম্র ধারন করে থাকেন ।
২৭) দ্বিমুখা গণপতিঃ- এঁনার দুটি গজমুখ। রত্নপাত্র, দন্ত, শক্তি ও অপর হস্তে কিছুই থাকে না। ইঁনি লাল ধুতি পরিধান করেন। মস্তকে জহরের মুকুট থাকে ।
২৮) ত্রিমুখা গণপতিঃ- এঁনার তিন গজমুখ। ছয় হাতে বর , অভয় , শক্তি, মালা, দন্ত ও ঘট ধারন করে সুসজ্জিত থাকেন । ইনি সোনার আসনে থাকেন। প্রতি মুখে তিনটি চোখ। ইঁনি লাল ।
২৯) সিংহ গণপতিঃ- এঁনার মুখ কিছুটা সিংহ আকৃতির। আট হাতে লতা, ঔষধি বৃক্ষের রসপাত্র, চক্র, বর, অভয়, ঘট, রত্নপাত্র, ফুলের তোড়া ধারন করে আছেন। ইঁনি সিংহ এর মত বলশালী। জহর খচিত বস্ত্র পরিধান করে থাকেন ।
৩০) যোগ গণপতিঃ- ইঁনি লাল। চার হাতে ধ্যানদণ্ড, ধনু বন্ধনী, দণ্ড , আখ ধারন করে থাকেন। ইঁনি খুবুই সুন্দর দেখতে ও সূর্যের মত উজ্জ্বল। ইঁনি নীল ধুতি পরিধান করেন ।
৩১) দুর্গা গণপতিঃ- ইঁনি গোলাপী বর্ণের। আট হাতে অঙ্কুশ, বান, চক্র, দন্ত, ধনুক, ফুল, পিষ্টক ও মোদক ধারন করে থাকেন।
৩২) সঙ্কটহরা গণপতিঃ- ইঁনি সূর্যের মত লাল ও তেজময়। ক্রোড়ে শক্তি বিরাজিতা। অঙ্কুশ, বর, পাশ ও মিষ্টি রসের পাত্র নিয়ে একটি লাল পদ্মে বিরাজ করেন। ইঁনি নীল ধুতি পরিধান করেন ।

YouTube video player

বিভিন্ন সোর্স থেকে সংগৃহীত এই হল ৩২ গণপতির সামান্য পরিচয়। তবে এই ৩২ রূপের মধ্যে সব রূপের পূজা কিন্তু সাধারণ গৃহীদের জন্য নয়। কিছু রূপের পূজা কেবল সাধু সন্ন্যাসী ব্রহ্মচারীদের জন্যই।
গণেশ পূজার ফুল, গণেশের মাথায় হাতির মাথা কেন, গণেশ পূজার উপকরণ গনেশের, মাথা কাটার কাহিনী গণেশের দ্বাদশ নাম, গণেশ ঠাকুর গনেশ কাহিনী, গণেশের ১০৮ নাম
ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Leave a Reply Cancel reply