শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না থাকলে তিনি হয়তো জাইমা রহমান সম্পর্কে যা বলেছেন একইরকম কথা শেখ হাসিনা সম্পর্কেও বলবেন।

বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান যখন বাহাত্তরের ধর্মনিরপেক্ষ সংবিধান ফিরে পেতে চেঁচিয়েছিলেন, তাঁর প্রতি ধর্মান্ধরা ক্রুদ্ধ হলেও আমার শ্রদ্ধা জেগেছিল। কিন্তু সেই শ্রদ্ধা আজ মুখ থুবড়ে পড়ে আছে যখন তিনি বিরোধী দলের নেত্রীর নাতনী জাইমা রহমান সম্পর্কে কুৎসিত মন্তব্য করলেন। বললেন জাইমা রহমান ‘লুইচ্চা, কুলাঙ্গার।’ বললেন ‘কৃষ্ণাঙ্গদের সঙ্গে প্রতিরাতে না ঘুমোলে জাইমার ঘুম হয় না’।
জাইমা রহমান রাতে একা ঘুমোবেন নাকি কারও সঙ্গে ঘুমোবেন, সে সম্পূর্ণই তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। তাঁর প্রেমিক বা শয্যাসঙ্গী কৃষ্ণাঙ্গ না শ্বেতাঙ্গ, সেও তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। প্রতিরাতে তিনি একজনের সঙ্গে ঘুমোবেন না দশজনের সঙ্গে ঘুমোবেন সেও তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। তিনি যদি কারও ইচ্ছের বাইরে জোর জবরদস্তি কাউকে বিছানায় না নেন, তাহলে কারও অভিযোগ করার কিছু নেই। প্রতিমন্ত্রীর নারীবিদ্বেষ, বর্ণবিদ্বেষ, ভয়ঙ্কর।
বাংলাদেশ কোনও সভ্য দেশ হলে আজ প্রতিমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হতো। যেহেতু সভ্যতার লেশমাত্র দেশটিতে নেই, তাই উঠতে বসতে নারীর বিরুদ্ধে জঘন্যতম মন্তব্য করাই দেশের প্রতিটি পুরুষের জন্য স্বাভাবিক।
যখনই বাংলাদেশের কোনও ধর্মীয় গোঁড়ামিমুক্ত প্রগতিশীল পুরুষকে দেখি, ভেবে নিই মানুষটি হয়তো মুক্তচিন্তায় বিশ্বাসী, হয়তো নারীর সমানাধিকারে বিশ্বাসী। কিন্তু দুএকদিন পরই টের পাই জিহাদিরা যেমন নারীবিদ্বেষী, তারাও একই রকম নারীবিদ্বেষী।
মুরাদ হাসান কিন্তু শেখ হাসিনার ভীষণ ভক্ত, হাসিনার জন্য তিনি মরতে পর্যন্ত পারেন বলেছেন। আমার আশংকা হয়, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না থাকলে তিনি হয়তো জাইমা রহমান সম্পর্কে যা বলেছেন একইরকম কথা শেখ হাসিনা সম্পর্কেও বলবেন। যতই হোক, শেখ হাসিনা তো নারী। নারীবিদ্বেষীরা তো কোনও নারীকে ছেড়ে দেয় না।
ফেসবুক থেকে সংগৃহীত তসলিমা নাসরিনের

Taslima Nasrin

 

Leave a Reply

Translate »