১০ উপায়ে দূর করুন শরীরের ফাটা দাগ | শরীরের ফাটা দাগ কেন হয় ?

স্ট্রেচ মার্ক দেখতে কেমন?

স্ট্রেচ মার্ক শরীরে লম্বা লম্বা সাদা ফাটা দাগের মতো দেখায়। কখনো কখনো এগুলো রঙ বদলে লালচে কিংবা বেগুনি রঙেরও হয়ে থাকে।

কেন হয়?

মূলত বাড়তি ওজনের কারণে এই ধরণের সমস্যা হয়। দেহের আয়তন বেড়ে গেলে সেই বাড়তি আয়তন ঢাকতে ত্বক অস্বাভাবিকভাবে প্রসারিত হয়। যারফলে শরীরে এই সাদা দাগের সৃষ্টি হয়।

মানুষের ত্বকে যে এক টান টান ভাব থাকে তা আসলে কোলাজেন নামক এক তন্তু বা ফাইবারের কল্যাণে। এই কোলাজেন তন্তু যদি শরীরে ঠিকমতো তৈরি হতে না পারে বা ভেঙে যায় তাহলে এই ধরনের দাগ দেখা যায়।

আর তাই আদতে ত্বকের অন্তঃস্তর দুর্বল হয়ে যায় ও ফেটে ফেটে যায়, যাকে আমরা স্ট্রেচ মার্ক বলে অভিহিত করি।

অনেক ক্ষেত্রে চামড়ায় অতিরিক্ত স্টেরয়েড ক্রিম লাগানোর ফলে বা অ্যাড্রিনাল গ্রন্থির গোলমালের কারণেও অতিরিক্ত স্টেরয়েড বের হলে কোলাজেন তন্তু এ ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হয়।

Read more:Coronavirus Disease 2019 (COVID-19) Information | কোভিড-১৯ রোগের লক্ষণ, চিকিৎসা ও সুরক্ষার উপায় কী, কতটা মারাত্মক, কোন্ দেশে কত ব্যাপক ও দ্রুত ছড়াচ্ছে

কোথায় হয়?

মানুষের শরীরের বিভিন্ন অংশে এই ফাটা দাগ বা স্ট্রেচ মার্কগুলো দেখা যেতে পারে। যেমন- হাত, ঘাড়, পেট, কোমর, হাটুর পেছনে, উরু এমনকি স্তনেও স্ট্রেচ মার্ক দেখা যায়।

তবে এগুলো মূলত কাঁধে বেশি হয়ে থাকে।

আর নারীদের ক্ষেত্রে স্তনের উপরিভাগ কিংবা প্রেগন্যান্সির পরে থাই বা উরুর ওপরদিকে দেখা দেয়।

কুলিংস নামক একটি হরমোনের রোগ রয়েছে। এটি থাকলেও এই ধরনের স্ট্রেচ মার্ক হতে দেখা যায়

আর পুরুষদের ক্ষেত্রে এই স্ট্রেচ মার্ক সাধারণত কাঁধে হতে দেখা যায়।

ত্বকের এই ফাটা দাগ দূরীকরণ যেন এক অসম্ভব কাজ। কিন্তু না, এখন আর অসম্ভব নয়। বরং খুব সম্ভব। কীভাবে জানতে চান?

Read more:আমার মুখে অনেক দাগ, ব্রণ কমবে কিভাবে? | দ্রুত ব্রণ দূর করার উপায়

১. গ্লাইকলিক অ্যাসিডযুক্ত বিভিন্ন বিউটি পণ্য যেমন টোনার, ক্লিনজার ও ময়শ্চারাইজার ইত্যাদি ব্যবহার করুন। এই অ্যাসিড ফাটা দাগ নির্মূলে সহায়ক ভূমিকা রাখে।

২. ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ ক্রিম ব্যবহার করুন। দিনে ৩ বার ফাটা দাগের উপর ম্যাসেজ করুন। ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ ক্রিম না পেলে সাপ্লিমেন্টও নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে সাপ্লিমেন্টটি দিনে ৩ বার খেতে হবে।

৩. প্রতিদিন ৩ বার ফাটা স্থানের উপর ডিমের সাদা অংশ ৫-১০ মিনিটের জন্য ম্যাসেজ করুন। যতদিন দাগটি নির্মূল না হয় ততদিন এই পদ্ধতিটি শরীরে এ্যাপ্লাই করে যাবেন।

৪. শরীরের ফাটা দাগ নির্মূলে লেবুর একটি টুকরা নিয়ে দাগের উপর ১৫ মিনিট ধরে ম্যাসেজ করুন। এতে বেশ উপকার পাওয়া যাবে।

৫. ফাটা দাগ নির্মূলে বিভিন্ন ধরণের তেল মিশিয়ে দাগের উপর প্রতিদিন ১০ মিনিট ম্যাসেজ করুন। উপকার পাওয়া যাবে।

৬. চিনি, লেবুর রস ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে স্ক্রাব বানিয়ে তা প্রতিদিন ফাটা দাগের উপর প্রতিদিন ৫-১০ মিনিট ম্যাসেজ করুন।

৭. এর জন্য আরেকটি প্রসেজ এ্যাপ্লাই করতে পারেন। এটি হল একটি আলু নিয়ে তা মোটা করে ২ টুকরা করে ফাটা দাগের উপওে কিছুক্ষণ ম্যাসেজ করুন। এর রস ভালো মত লাগলে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন স্থানটি।

৮. ঘৃতকুমারির পাতা নিয়ে এর ভেতর থেকে জেলী সদৃশ অংশটি বের করে দাগের উপরে লাগিয়ে ২ ঘন্টা অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৯. এপ্রিকট ফলের বিচি ফেলে দিয়ে এর পেস্ট বানিয়ে দাগের উপর ১৫-২০ মিনিটের জন্য রেখে দিন প্রতিদিন ২ বার।

১০. প্রতিদিন যথেষ্ট পরিমাণে প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন মাছ, ডিমের সাদা অংশ, দই, বাদাম, সূর্যমুখীর বীজ, তরমুজের বীজ খাবেন। এগুলো আপনার ত্বককে জলযোয়িত রাখবে। শরীরের ফাটা দাগ নির্মূলে সহায়তা করবে।

Read more:পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত পাঁচটি ফুল | বিষাক্ত ফুল This flower is poisonous

 

স্ট্রেচ মার্ক এর চিকিৎসা, মহিলাদের পেটের দাগ দূর করার ক্রিম এর নাম, শরীরের ফাটা দাগ চিকিৎসা, মাতৃত্ব দাগ দূর করার ক্রিম, শরীরের ফাটা দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়, শরীরের ফাটা দাগ কেন হয়, শরীরের দাগ দূর করার ক্রিম, গায়ের ফাটা দাগ দূর করার উপায়

শরীরের ফাটা দাগ কেন হয়, মহিলাদের পেটের দাগ দূর করার ক্রিম এর নাম, শরীরের ফাটা দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়, শরীরের ফাটা দাগ দূর করার ক্রিম এর নাম, স্ট্রেচ মার্ক এর চিকিৎসা, শরীর ফাটা, শরীরের দাগ দূর করার ক্রিম, শরীর ফাটে কেন

Leave a Reply

Translate »