Best scholarship in Muslim | ২০১৯ সালের সেরা ১০ মুসলিম স্কলার

ইসলামী পন্ডিতগণ ইসলামকে সারা বিশ্বের মুসলমানদের অন্তরে পুনরুজ্জিবীত করেছেন। তারা তাদের ব্যক্তিত্ব ও বক্তব্য দিয়ে বিশ্বজুড়ে প্রভাবিত করেছেন অসংখ্য মুসলমানকে। এবারের প্রবন্ধে  এরকমই সেরা দশজন ইসলামী স্কলারের সঙ্গে আপনাদেরকে পরিচয় করিয়ে দেব আমরা। এঁরা হলেন ১০ জন বিখ্যাত ইসলামিক ব্যক্তিত্ব যারা কোটি কোটি মুসলমানের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন। জয় করে নিয়েছেন মুসলমানদের আস্থা ও ভালোবাসা। তারা হলেন—

১০. আল্লামা তাকি উসমানি : মুহাম্মদ তাকি উসমানী পাকিস্তানের অধিবাসী । তিনি একজন দেওবন্দী হানাফি গবেষক। ১৯৮১ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত তিনি ফেডারেল শরিয়াহ কোর্টের বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন। পরবর্তী বছরে অর্থাৎ ১৯৮২ ও ২০০২ সালে পাকিস্তান শরিয়ত আপিল বেঞ্চে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন।

০৯. বিলাল ফিলিপস : পুরো নাম আবু আমিনাহ বিলাল ফিলিপসি। তিনি জ্যামাইকান বংশদ্ভুত কানাডিয়ান মুসলিম প্রশিক্ষক, বক্তা ও উদ্ভাবক। বর্তমানে তিনি কাতারে বসবাস করেন।  ইসলামিক স্যাটেলাইট টিভি স্টেশন পিস টিভিতে অনুষ্ঠান করেন তিনি।

০৮.  মৌলানা তারিক জামিল : মৌলানা তারিক জামিল একজন ইসলামী গবেষক, প্রচারক ও স্পিকার। তিনি তবলিগি জামায়াতের একজন ব্যক্তিত্ব যিনি পাকিস্তানে ফয়সালাবাদে একটি মাদ্রাসা পরিচালনা করেন। তিনি the muslim 500 বই এর ২০১৩-১৪ সংস্করণে মুসলিম প্রভাবশালী  বক্তার তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হন।

০৭. ইউসুফ এস্তেস : ইউসুফ এস্তেস টেক্সাস থেকে নির্বাচিত একজন আমেরিকান মন্ত্রী। যিনি ১৯৯১ সালে খ্রিস্টান ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্মে ধীক্ষিত হন। ১৯৯০ এর দশকে যুক্তরাষ্ট্রের United States Bureau of Prisons এর মুসলিম চ্যাপলাইন হয়েছিলেন এবং ২০০০ সালের সেপ্টেম্বরে United Nations World Peace Conference for Religious Leaders এ একজন মুসলিম প্রতিনিধির সেবা করেন বলে দাবি করেন তিনি।

০৬. ওমর সুলেইমান : ইমাম ওমর সুলেইমান ইয়াকিন ইনস্টিটিউট ফর ইসলামিক রিসার্চ এবং সাউদার্ন মেথডিস্ট ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজের শিক্ষক। “Kill The Apostate Imams.” নামের চলচ্চিত্রের জন্যে তিনি আই এস কতৃক হত্যার হুমকীর সম্মুখিন হয়েছিলেন।

০৫. দালিয়া মোঙ্গল : দালিয়া মোঙ্গল মিশরীয় বংশোদ্ভত আমেরিকান গবেষক। তিনি আমেরিকার ওয়াশিংটনস্থ সোসাল পলিসি এন্ড আন্ডাস্টান্ডিং ইনস্টিটিউটের গবেষণার পরিচালক।

০৪. ইয়াসমিন মোগাহেদ : ইয়াসমিন মোগাহেদ তাঁর সঙ্গীতশিল্পী এবং চিত্তাকর্ষক প্রতিচ্ছবিসহ দর্শকদের একটি সম্পূর্ণ গোষ্ঠীর আকর্ষকণ অর্জনের জন্য পরিচিত। তিনি মনোবিজ্ঞানে স্নাতক এবং উইসকনসিন-ম্যাডিসন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতায় স্নাতোকত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

০৩. মুফতি মেঙ্ক : ইসমাইল ইবনে মুসা মেঙ্ক, যিনি মুসলিম সমাজে মুফতি মেঙ্ক নামে অত্যাধিক পরিচিত, একজন ইসলাম ধর্ম প্রচারক এবং জিম্বাবুয়ের গ্র্যান্ড মুফতি।

০২. নোমান আলী খান : নোমান আলী খান একজন পাকিস্তানী-আমেরিকান ধর্মীয় আলোচক এবং লেখক। .ইনিস্টিস্টিউট ফর অ্যারাবিক এন্ড কুরআন স্টাডিজের প্রধান পরিচালক ও প্রশিক্ষক।

 

আরও পড়ুন: সদগুরু জাগ্গি বাসুদেব জীবনী

০১. জাকির নায়েক : জাকির আবদুল করিম নায়েক একজন ইসলাম প্রচারক এবং ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের একজন লেখক। তিনি পিস টিভি চ্যানেল ও ইসলামিক রিচার্স ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে বিশ্বে অধিক পরিচিত। যার মাধ্যমে তিনি প্রায় ২০০ মিলিয়ন লোকের কাছে তার বার্তা পৌছাতে সক্ষম হয়েছেন।

সূত্র : দ্য ইসলামিক ইসফরমেশন

Leave a Reply

Translate »