Sadhguru’s Republic Day Message: ‘মাটি বাঁচাও আন্দোলন’-র ডাক, প্রজাতন্ত্র দিবসের বার্তায় বললেন সদগুরু

বিশ্বব্যাপী মাটি অবক্ষয় বিপর্যয়কর হতে পারে। সেই কারণেই মাটি বাঁচাতে আন্দোলনে সামিল হবেন তিনি। পাশাপাশি দেশের মানুষকে তিনি সেই আন্দোলনে যোগ দান করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন মাটির এই ক্ষয় আগামী দিনে খাবার ও জলের ওপর প্রভাব ফেলবে। যার জেরে মানুষের খাদ্য ও পাণীয়র নিরাপত্তা বিপন্ন হতে পারে।

আমাদের জীবনে মাটির গুরুত্ব অপরিসীম। সেই কথাই সাধারণতন্ত্র দিবসের (Republic Day 2022) দিনে আরও একবার মনে করিয়েদিলেন বিশিষ্ট ধর্মীয় গুরু তথা ইশা ফাউন্ডেশনের (Isha Foundation) প্রতিষ্ঠাতা সদগুরু (Sadhguru)।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পাশাপাশি একটি বিবৃতি জারি করে সেই কথা জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেছেন, ‘মাটিকে একটি জীবন্ত প্রাণী (Soil Alive) রূপে’ দেখতে।

মাটিকে সেইভাবেই অনুভব করতে হবে। আগামী প্রজন্মের জন্য উত্তরাধিকার ভিত্তিতে মাটির যত্ন নেওয়া জরুরি। তিনি আরও বলেছেন, মাটি সংরক্ষণ অত্যান্ত জরুরি। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এটি দেশের সকল নাগরিকের মৌলিক দায়িত্ব বলেও দাবি করেছেন তিনি।

তিনি আরও বলেছেন প্রজাতন্ত্র দিবস বা সাধারণতন্ত্র দিবসে ভারতের কাছে একটি বিশেষ দিন। বর্তমানে গোটা দেশ ৭৫তম বার্ষিকি উদযাপন করছে। সেই কারণে তিনি এই বিশেষ দিনটি থেকেই মাটি বাঁচাও আন্দোলবনের কথা ঘোষণা করেছেন। সদগুরু তাঁর বার্তায় বলেছেন, ভারত অনন্য শক্তিশ গণতন্ত্র হিসেবে তার যৌবনের কথা বলে। সভ্যতা হিসেবে ভারত প্রাচীনত্বের কথা তুলে ধরে।

পৃথিবীতে হামলা করতে পারে ‘এলিয়েনরা’!

বর্তমানে দেশ একটি সম্ভাবনাময় সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তরুণ ভারতের শক্তি একটি কার্যকর বাস্তবতায় রূপান্তরিত হয়েছে। তিনি ভারতের তরুণ ও দেশের প্রতিটি নাগরিককে মাটি নিয়ে বিশ্বব্যাপী আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন মাটি ইস্যু মার্চ থেকে তিনি আন্দোলনে নামবেন। বিশ্বব্যাপী মাটি অবক্ষয় বিপর্যয়কর হতে পারে। সেই কারণেই মাটি বাঁচাতে আন্দোলনে সামিল হবেন তিনি।

এক পায়ে লাফিয়ে ১ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে স্কুলে যায় সীমা (ভিডিও)

পাশাপাশি দেশের মানুষকে তিনি সেই আন্দোলনে যোগ দান করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন মাটির এই ক্ষয় আগামী দিনে খাবার ও জলের ওপর প্রভাব ফেলবে। যার জেরে মানুষের খাদ্য ও পাণীয়র নিরাপত্তা বিপন্ন হতে পারে। এই দুটিরই অভাব দেখা দিতে পারে। মাটির এমন ক্ষয় আগে দেখা দেয়নি বলও দাবি করেছেন তিনি। জলবায়ুর দ্রুত পরিবর্তনে কারণ ও প্রজাতি বিলুপ্ত হওয়ার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে মাটির এই ক্ষয়।

তেমনও আশঙ্কা করেছেন তিনি। সদগুরু বলেছেন মাটি রাসায়নিকের কোনও জমাটবাঁধা পদর্থ নয়। একটি একটি জীবন্ত প্রাণী। মাটি যদি ভালো হয় তাহলে তা জীববৈচিত্রের ওপর প্রভাব বিস্তার করতে পারে। মাটির ওপরেই মানুষের অস্তিত্ব নির্ভর করে। তিনি আরও বলেন মাটির ওপরের ১২-১৫ ইঞ্চির ওপরে মানুষের অস্তিত্বে নির্ভর করে। তাই মাটি আন্দোলনে প্রত্যেকের যোগদান অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। সদগুরু বলেছেন ১৯২টি দেশেই মাটির অবক্ষয় চলছে।

রেলস্টেশনে তরুণীকে হেনস্তাকারী সেই নারী গ্রেপ্তার

আন্দোলনের লক্ষ্য বিশ্বের ৩.৫ বিলিয়ন মানুষকে প্রভাবিত করা। এরা সকলেই ভোটার। সরকারি নির্বাচিত করার ক্ষমতা এদের রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন তাঁর আশা এইসব মানুষই পরিবেশগত সংরক্ষণকে অগ্রাধিকার দেবে। তিনি রাষ্ট্র সংঘের হুঁশিয়ারির কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। বলেছেন বর্তমান এএফও সতর্ক করেছে। বলেছে যেভাবে মাটি ক্ষয় হচ্ছে তাতে ৫০ বছরেরও কম সময়ে লাগবে বিশ্বের মারাত্ম খাদ্য সংকটে পড়তে। প্রচুর পরিমাণে চাষের জমি অনুর্বর হয়ে পড়ে রয়েছে, যেগুলি ফসল উৎপাদনে অক্ষম।

Source: asianetnews

Leave a Reply

Translate »