দিনে কয়টা ডিম খাওয়া ভালো

প্রোটিনের উৎস ডিম। এতে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। যা আমাদের শরীরের বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধ কাজ করে থাকে। ফলে আমাদের শরীর থাকে সুস্থ এবং রোগ মুক্ত।

ছোট থেকে বড় সবাই ডিম খেতে পছন্দ করে থাকে। সকালের নাস্তার টেবিলে হোক বা দুপুরে খাবারের টেবিলে হোক। ডিম সব সময়ই পছন্দ সবার। কিন্তু দিনে কয়টা ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যর জন্য ভালো? তা কি আমরা জানি?

 

 

তাহলে চলুন জেনে নেই দিনে কয়টা ডিম খেলে আপনি থাকবেন সুস্থ এবং সেই সাথে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে।

 

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা নিয়মিত সারাদিনে দুটি ডিম খায় তারা নানা ধরনের রোগ বালাই থেকে মুক্ত থাকে। কেননা ডিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন। একটি ডিমেই আছে ৬গ্রাম প্রোটিন এবং ৮০ ভাগ ক্যালরি। তাই যারা দিনে দুইটা ডিম খান তারা থাকবেন টেনশনে ফ্রি হয়ে। কিন্তু সমস্যা তাদের জন্য যারা দুইটার অধিক ডিম খেয়ে থাকে।

 

 

এক্ষেত্রে অধিক ডিম খাওয়া যাবে তাতে কোন ক্ষতি নেই। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে এর সাথে সে কি কি খাবার গ্রহণ করছেন।সেই খাবার যদি হয়ে থাকে পুষ্টিকর এবং কম ক্যালরি যুক্ত তাহলে নির্দ্বিধায় সে অতিরিক্ত খেতে পারবে।

 

যেমন, বিভিন্ন ধরনের সবুজ শাক-সবজি, পনির, মাছ ইত্যাদি। এই গুলো যেমন প্রোটিনে ভরপুর তেমনি কম ক্যালরি ও।তাই চাইলে এই খাবার গুলোর সাথে মিল রেখে খেতে পারেন ডিম। এতে ক্যালরি গ্রহণ করা হবে না ফলে আপনার শরীর ও থাকবে সুস্থ।

 

ডিম আপনি চাইলে সেদ্ধ করে খেতে পারেন, অথবা ভেজে ও খেতে পারেন।ভেজে খাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যবহার করুন সরিষার তেল অথবা অলিভ অয়েল ও ব্যবহার করতে পারেন। এতে বেশি ক্যালরি খাওয়ার ও ভয় থাকবে না।

 

আসলে ডিম আপনি কয়টা খাবেন সেটা কিন্তু সবটাই নির্ভর করছে আপনার উপর। কেননা আপনি কতটা ক্যালরি গ্রহণ করবেন সেটার উপর নির্ভর করেই ডিম খেতে হবে। তাই যদি বেশি পরিমাণে ডিম খেতে চান তাহলে এর পাশাপাশি রাখতে হবে শাক-সবজী, ফল, ওটস, মাছ ইত্যাদি খাবার

Leave a Reply

Translate »