সঙ্গমের সময় সঙ্গিনীর অনুমতি না নিয়ে কন্ডোম খুলে ফেলা অপরাধ,পর্যবেক্ষণ NZ আদালতের

নিরাপদ যৌনতার জন্য কন্ডোমের (Condom) বিকল্প নেই। এর পাশাপাশি অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণের সঙ্গে যৌন রোগও এড়ানোও যায়। তবে যৌন সঙ্গমের সময় অনেক পুরুষই কন্ডোম খুলে ফেলেন। এই ধরনের ঘটনাকে অপরাধ হিসেবে মনে করছে নিউজিল্যান্ডের একটি আদালত।

 এনজি হেরাল্ডের প্রতিবেদন অনুযায়ী, নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটনে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছেন জনৈক মহিলা। তাঁর দাবি, ওই ব্যক্তি সঙ্গমের সময় কন্ডোম খুলে ফেলেন।

আরও পড়ুন :স্ত্রী’কে খুব সুখী রা’খুন এই ৯টি কৌ’শলে!

তার জেরে মানসিক ও শারীরিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তিনি। ওয়েটিংটনের আদালতে ওই পুরুষ সঙ্গীর বিরুদ্ধে পারস্পরিক সমঝোতা, ধর্ষণ ও বিশ্বাসভঙ্গের মামলা দায়ের করেছেন। এই মামলা গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে নিউজিল্য়ান্ডের আদালত। আদালতের পর্যবেক্ষণ, মহিলা সঙ্গিনীর ভরসা ভেঙে কন্ডোম খোলা গুরুতর অপরাধ।

Read More: প্রথমে বাবার সঙ্গে প্রেম, কয়েক বছর পর ছেলের সঙ্গেও সম্পর্কে জড়ান এই অভিনেত্রী!

 এতে সন্তানসম্ভবা হতে পারেন ওই মহিলা। শারীরিক, মানসিক ও পারিবারিক সমস্যার কারণ হতে পারে এমন আচরণ। এতে আমন্ত্রণ দেওয়া হচ্ছে যৌন রোগকেও। এই ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ ক্ষমার অযোগ্য। আদালতের এই পর্যবেক্ষণে মনে করা হচ্ছে, ওই ব্যক্তির হাজতবাসের সাজা হতে পারে।   সঙ্গমের সময় সঙ্গিনীর ইচ্ছা বিরুদ্ধে কন্ডোম খুলে ফেলার ঘটনা আমেরিকা, ব্রিটেন ও সুইডেনের মতো দেশে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। আইনিভাষায় তা প্রতারণা। বিখ্যাত সাংবাদিক জুলিয়ান অ্যাসেঞ্জের বিরুদ্ধেও এই অভিযোগ উঠেছিল। অনেক বছর পুরনো মামলা হওয়ায় সাজা পাননি তিনি।

একটি রিপোর্ট  অনুযায়ী, গত ৫ বছরের তুলনায় নিউজিল্যান্ডে মহিলাদের উপরে যৌন অপরাধ  বৃদ্ধি পেয়েছে ৫০ শতাংশ। ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশেও নারীদের উপরে অত্যাচারের ঘটনা ঊর্ধ্বমুখী। এর পাশাপাশি হিংসাপূর্ণ এলাকাগুলিতেও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন মহিলারা। এনিয়ে আশঙ্কাপ্রকাশ করেছে রাষ্ট্রসঙ্ঘও।

ডেইলি নিউজ টাইমস বিডি ডটকম (Dailynewstimesbd.com)এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন করুন।

Leave a Reply

Translate »